হুঁশিয়ারি, পাল্টা হুঁশিয়ারির পালা লেগেই রয়েছে উত্তর কোরিয়া ও আমেরিকার মধ্যে। সেই আগুনে আরও ঘি পড়ল শুক্রবার।

ট্রাম্পের ধ্বংস করার হুমকির পাল্টা জবাব দিয়ে পিয়ংইয়ংয়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঘোষণা করল আমেরিকাকে জব্দ করতে এবার প্রশান্ত মহাসাগরের উপরে হাইড্রোজেন বোমা ফাটাবে তারা।

চলতি সেপ্টেম্বরেই হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষা করে বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছেন কিম জং উন। পর পর দু’বার জাপানের উপর দিয়ে শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে তারা। এরপরেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসাবে জাতিসংঘে তার প্রথম বক্তৃতায় উত্তর কোরিয়াকে গুড়িয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে তাতেও ডরাতে নারাজ উত্তর কোরিয়া। তাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি অং-হো জানিয়েছেন, পরবর্তী সময়ে আরও শক্তিশালী হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষা হবে প্রশান্ত মহাসাগরের উপরে।

কিছুদিন আগে করা উত্তর কোরিয়ার পরমাণু বিস্ফোরণ কর্মসূচি নিয়ে আলোড়ন ছড়িয়ে পড়ল দুনিয়ার সর্বত্র। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের দাবি, ষষ্ঠ পরমাণু বিস্ফোরণের মাত্রা গত পরীক্ষার থেকে ৯.৮ গুণ বেশি। যা এক লহমায় উড়িয়ে দিতে পারে হিরোশিমা-নাগাসাকিতে নিক্ষেপ করা পরমাণু বোমাকে। উত্তর কোরিয়ার ভূখণ্ড থেকে প্রবল কম্পন ছড়িয়ে পড়তেই আশঙ্কিত হয় দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান সহ প্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ।
জাপান সরকারের দাবি, সাম্প্রতিক সময়ে সবথেকে বড় পরমাণু বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে উত্তর কোরিয়া সরকার। অন্যদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা বলছে, উত্তর কোরিয়ার ১০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ৫.৬ মাত্রার মাঝারি আকারের কম্পন সৃষ্টি হয়েছে। এই কম্পন ভূমিকম্প নাকি অন্য কোনও কারণে সৃষ্ট তা এখনো জানা যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here