Amar Praner Bangladesh

আশুলিয়ায় আ’লীগ নেতা নাজিমের বিরুদ্ধে মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ

 

 

মোর্শেদ আলী মারুফ :

 

সাভারের আশুলিয়ায় জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে স্বামী-স্ত্রীকে মারধর ও ছেলের বউকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আহত স্বামী-স্ত্রী সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অভিযুক্তরা হলেন- আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও ঘোষবাগ এলাকার সরুফ উদ্দীনের ছেলে নাজিম উদ্দীন, নাজিম উদ্দীনের পিতা সরুফ উদ্দীন, একই এলাকার রুস্তম, রফিক, আলিফ, নাসু, দুলাল ও রাজিব।

ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউনিয়নের ঘোষবাগ এলাকার হানিফ মোল্লার সাথে প্রতিবেশী সরুফ উদ্দীনের ছেলে নাজিম উদ্দীনের জমি সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে সোমবার বিকেল ৫ টার দিকে ঘোষবাগ এলাকার নাজিম উদ্দীনের নেতৃত্বে রুস্তম, রফিক, আলিফ, নাসু, দুলাল ও রাজিব ভুক্তভোগী হানিফ মোল্লাকে একা পেয়ে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায় ও লাঠি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারধর করে। এসময় হানিফ মোল্লার ডাক চিৎকারে তার স্ত্রী ও ছেলের বউ ঘটনাস্থলে গেলে অভিযুক্তরা তার স্ত্রীর পায়ে লাঠি দিয়ে আঘাত করে ও ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয়। এসময় স্ত্রীকে মারধরের প্রতিবাদ করতে গেলে অভিযুক্তরা হানিফ মোল্লাকে লোহার রড নিয়ে মারতে আসে। তখন তার ছেলের বউ তাদের আটকাতে গেলে অভিযুক্ত আলিফ ও রাজিব তার শ্লীলতাহানি করে ও ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। এসময় অভিযুক্ত নাজিম উদ্দীন তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে ‘এ ঘটনায় চুপ থাকিস, কোন মামলা-মোকদ্দমা করলে জানে মেরে ফেলবো’ বলে হুমকি প্রদান করে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগী হানিফ মোল্লার স্ত্রী শিল্পী আক্তার জানান, আশুলিয়ার ঘোষবাগ এলাকার নাজিম উদ্দীন নিজেকে আওয়ামী লীগ নেতা পরিচয় দিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। বিভিন্ন মানুষের জমি দখলসহ একাধিক অপকর্মের সাথে জড়িত এই নাজিম। নাজিমের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনী আমার স্বামী হানিফ মোল্লাকে মারধর করে। এসময় তার ডাক চিৎকারে এগিয়ে গেলে তারা আমাকে মারধর করে ও আমার ছেলের বউকে টানাহেঁচড়া করে শ্লীলতাহানি করে। ঘটনার পর থেকে নাজিম আমার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানি করবে ও জানে মেরে ফেলবে মর্মেও হুমকি দিয়ে আসছে। স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, আওয়ামী লীগ নেতা নাজিম উদ্দীনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন বাড়িওয়ালার কাছ থেকে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়াসহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

এ সকল বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত নাজিম উদ্দীন বলেন, ওনাদের (হানিফ মোল্লা) জমির সাথে আমাদের জমির সীমানা। এখানে মারধরের কোন ঘটনাই ঘটেনি। তবে আমার বাবাকে তারা প্রথমে ধাক্কা দিয়েছে। এর বেশি কিছু বলতে পারবো না বলেই তিনি মুঠোফোনের সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন।

এ ব্যাপারে অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুব্রত রায় বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মারধর ও শ্লীলতাহানির একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।