ইতালিতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭১২ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

 

লাশের মিছিলে স্তব্ধ ইতালি। কাঁদছে হাজারো পরিবার। কেউ কাউকে শান্ত্বনা দিতে পারছে না। সবাই যেন ভাষা হারিয়ে ফেলেছে। থেমে গেছে গোটা দেশ। একের পর এক কফিন নামছে কবরে।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস দেশটিতে প্রতিদিন নির্দয়ভাবে কেড়ে নিচ্ছে শত শত প্রাণ। মৃত্যুর মিছিল থামছেই না। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আরও ৭১২ জনের প্রাণ নিয়েছে করোনা। যা বিশ্বের যে কোনো দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ।

এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা ৮ হাজার ছাড়িয়েছে। লাশের দেশে পরিণত হয়েছে পুরো ইতালি। দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৬ হাজার ২০৩ জন। সবমিলিয়ে করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা ৮০ হাজার ছাড়িয়েছে ইতালিতে।

বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টার সর্বোচ্চসংখ্যক করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী মারা গেছে ইতালিতে।

আজ শুক্রবার জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ড ওমিটার এই তথ্য জানিয়েছে।

গত মাসে ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় লোমবার্ডি এলাকাতেই প্রথম ভাইরাসটির প্রকোপ শুরু হয়। বর্তমানে সেখানকার হাজার হাজার মানুষকে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো। সেখানে সহায়তা দিচ্ছেন চীনের মেডিক্যাল বিশেষজ্ঞরা।

দেশটিতে করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা সরকারি তথ্যের চেয়ে সম্ভবত ১০ গুণ বেশি হতে পারে বলে গত মঙ্গলবার আশঙ্কা প্রকাশ করেন দেশটির বেসামরিক সুরক্ষা সংস্থার প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেলি।

তিনি বলেন, ‘প্রতি দশজন আক্রান্তের মধ্যে হয়তো একজনকে পরীক্ষা করা সম্ভব হয়েছে। সে হিসেবে দেশটিতে প্রায় ছয় লাখ ৪০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে।’

এদিকে, করোনার পরবর্তী বিস্তার নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যে সতর্ক বার্তা দিয়েছিল তা অনেকটাই বাস্তবতার পথে। যেখানে বলা হয়েছিল, ইতালির পর খুব দ্রুত ভাইরাসটি আমেরিকায় ভয়াবহ রূপ নিবে। হয়েছেও তাই।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আক্রান্তের তালিকায় চীন-ইতালিকে ছাড়িয়ে সবার ওপরে উঠেছে। যেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫ হাজার ৪৩৪ জন, যা গোটা বিশ্বের মধ্যেই সর্বোচ্চ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন প্রায় ১৫ হাজারেরও বেশি মানুষ।