মোঃ শাকিল আহমেদ, বরগুনা :

দীর্ঘদিন সাগরে মাছ শিকারে ব্যস্ত সময় পার করেছেন উপকূলের জেলেরা। তবে শুক্রবার (৭ অক্টোবর) থেকে মা ইলিশ সংরক্ষণের জন্য সরকার ২২ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

তাই এ অলস সময়ে ট্রলার ধুয়ে পরিষ্কার আর ছেড়া জাল বুননে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন উপকূলের জেলেরা।

এদিকে ৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া এ নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে ২৮ অক্টোবর।

সরজমিনে বিষখালী ও‌ বলেশ্বর নদ পাড়ে দেখা গেছে, বিষখালী নদী সংলগ্ন বিভিন্ন খালে সারিবদ্ধভাবে নোঙর করে কেউ জাল ধুয়ে ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার করছেন জেলেরা। এছাড়া কেউ কেউ ট্রলার ধোয়ার কাজে ব্যস্ত।

নিষেধাজ্ঞা শুরুর আগের দিন দুপুর থেকেই সাগর ও নদী থেকে সারিবদ্ধভাবে জেলেরা তীরে ফিরতে শুরু করে। রাত ১২ টার আগেই বেশিরভাগ ট্রলার ঘাটে ফিরে। ঘাটে এসে রাত কাটিয়ে ভোররাত থেকেই ট্রলার থেকে জাল‌ নামিয়ে ধোয়া শুরু করে এবং ট্রলারগুলো ধুয়ে পরিষ্কার করতে শুরু করে।

সাগর থেকে ফিরে আসা জেলেরা বলেন- নিষেধাজ্ঞার এ সময়েও আমাদের ব্যস্ত থাকতে হয়। এসময় জাল আর ট্রলার ধুয়ে পরিষ্কার করতে হয়। এছাড়া নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগেই ট্রলার মেরামত ও ছেড়া জালগুলো বুনতে হবে।

একাধিক জেলে জানায়, নিষেধাজ্ঞার সময় সরকার যে চাল দেয় তা একেবারেই অপ্রতুল। চালের পরিমাণ বাড়ানোর দরকার।

এছাড়া ভারতের সঙ্গে মিলিয়ে নিষেধাজ্ঞার দাবি করেন তারা।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here