টঙ্গীতে সরকারি পুকুর দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের আশঙ্কা

মো: বশির আলম, টঙ্গী

গতকাল শনিবার টঙ্গীর কলাবাগান বস্তি এলাকায় একটি সরকারি পুকুর জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দু’পক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় যে কোন সময় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কায় পুরো বস্তিবাসীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে স্থানীয় নেতবৃন্দ ও বস্তিবাসীরা জানায়, টঙ্গীর পশ্চিম থানাধীন কলাবাগান বস্তি এলাকায় সরকারি ডিআইটির পতিত জায়গায় ১৩ বিঘা জমির উপর সরকারি পুকুর অবৈধ ভাবে দখল করে একটি প্রভাবশালী মহল মাছ চাষ করে আসছিল। কিন্তু অপর একটি দল ওই পুকুরটি দখল করার চেষ্টা করে। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এর ফাকে অপর দলের লোকজন পুকুরের পানির পাইপ খুলে দিলে পুকুর থেকে সমস্ত মাছ তুরাগ নদীতে চলে যায়। এতে প্রায় ৩ লাখ টাকার মাছ ক্ষতিসাধান হয়েছে বলে গফুর গংরা দাবী করেন। খবর পেয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানার এসআই হাসানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ ব্যাপারে জালাল গাজীর লোকজন দখলে যেতে ব্যর্থ হয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। ডায়েরী নং-১১৮।

জিডি সূত্রে জানা যায়, গাজী জালাল বলেন, দীর্ঘদিন যাবত অবৈধভাবে ওই পুকুরে মাছ চাষ করে ভোগদখল করে আসছিল। তাদেরকে পুকুর ছেড়ে দেয়ার জন্য বলেন। কিন্তু তারা কোন অবস্থাতেই পুকুর ছাড়তে রাজি হয়নি। এ ঘটনায় ৫৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: সোলায়মান হায়দারের কার্যালয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

এব্যাপারে কাউন্সিলরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দুই পক্ষকে আমার কার্যালয়ে রাত ৮টায় মিমাংশার জন্য অফিসে আসতে বলেছি। তারা উভয় পক্ষ আসলে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করবো।