Amar Praner Bangladesh

টাঙ্গাইলে ১৮ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে

 

 

টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

 

টাঙ্গাইলের ৬টি উপজেলার ১৮টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বুধবার (১৫ জুন) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে একটানা বিকেলে ৪টা পর্যন্ত এ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলবে।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৭১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া সাধারণ সদস্য পদে ৪৮৯ জন এবং সংরক্ষিত পদে ১৬৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাধারণ সদস্য পদে ১ জন প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে মোট ভোটার ২ লাখ ৭০ হাজার ৯০১ জন। ভোট কেন্দ্র ১৫০টি। ভোট কক্ষ রয়েছে ৮৫৮টি।

এদিকে, নির্বাচন সুষ্ঠু রাখতে ১৬ প্লাটুন বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাবসহ বিপুল সংখ্যাক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, সখীপুর, মধুপুর, মির্জাপুর, নাগরপুর এবং বাসাইল উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এছাড়াও দেলদুয়ার উপজেলায় আটিয়া ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে অনুষ্ঠিত হবে। সখীপুর উপজেলায় গজারিয়া, দাড়িয়াপুর; মধুপুরে কুড়ালিয়া, মহিষমাড়া, আউশনারা, কুড়াগাছা, বেরীবাইদ, শোলাকুড়ী; মির্জাপুরে বহুরিয়া, ফতেপুর, ভাওরা, লতিফপুর, তরফপুর, আজগানা; নাগরপুরে ভারড়া; বাসাইলে কাশিল, বাসাইল সদর ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এদিকে, ঘাটাইল উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নে তিন নম্বর সংরক্ষিণ ওয়ার্ড এবং ধনবাড়ী উপজেলায় বীরতারা ইউনিয়নে চার নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

অপরদিকে নির্বাচনের আগের দিন মঙ্গলবার গোপালপুর উপজেলার হেমনগর ও ঝাওয়াইল এবং মধুপুর উপজেলার ফুলবাগচালা ইউপি নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। অন্যদিকে নির্বাচনের তিন দিন আগে মধুপুর উপজেলার অরণখোলা ইউপি নির্বাচন স্থগিত করে কমিশন।

জেলা নির্বাচন অফিস জানায়, নির্বাচনে মির্জাপুরে ৩ প্লাটুন বিজিবি, মধুপুরে ৩ প্লাটুন, সখীপুরে ২ প্লাটুন, নাগরপুরে ২ প্লাটুন, বাসাইলে ২ প্লাটুন এবং দেলদুয়ারে ২ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করছে। এছাড়া মির্জাপুর এবং মধুপুরে ২ জন করে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছে। বাকি উপজেলায় ১ জন করে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও প্রতিটি ইউনিয়নে ১ জন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ এইচ এম কামরুল হাসান বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ করতে পর্যাপ্ত সংখ্যাক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। আশা করছি বিগত সময়ের মতো এবারও নির্বাচন সুষ্ঠু এবং অবাধ হবে।