মনির হোসেন (শিশির) :

রাজধানীর তুরাগ থানা এলাকায় খাদিজা আক্তার (১৪) নামে এক গার্মেন্টসকর্মীর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। পুলিশ লাশ উদ্ধারের পর থানায় নিয়ে যায়।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে কামারপাড়া পুরাতন বাজার সংলগ্ন ৬ নং রোডের ৬ নং বাসার হানিফ এর এক ভাড়াটিয়া বাড়িতে এই ঘটনাটি ঘটে।

নিহত খাদিজা আক্তার ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল থানার উত্তর রসুলপুর গ্রামের মোঃ বাবুল মিয়ার ছেলে। সে পেশায় একজন গার্মেন্টসকর্মী ছিলেন। নিহত ওই কিশোরী দীর্ঘদিন মা-বাবার সাথে ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসিতেছেন।
কয়েকদিন আগে তার মা-বাবা বাসা থেকে দেশে চলে গেলে ফুপু ও দাদীর কাছে তাকে রেখে যান।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টায় খাদিজা আক্তার (১৪) নামে এক গার্মেন্টসকর্মী তুরাগের কামারপাড়া পুরাতন বাজার সংলগ্ন এক ভাড়াটিয়া বাসায় গার্মেন্টসে না গিয়ে রুমের ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের হুকের সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। পরবর্তীতে তার পরিবারের লোকজন ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছেন। এই রির্পোট লেখা আত্মহত্যার সঠিক কারন জানা যায়নি।

এই বিষয়ে তুরাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মৃত দেহের সুরতহাল শেষে লাশ ময়নতদন্তের জন্য শহীদ সোহরওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here