নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

নড়াইলে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ি-ঘরে হামলা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে নাসির নগরের ঘটনার ধারাবাহিকতা। এ বিষয়ে প্রশাসনের গাফলতি আছে কিনা তা তদন্তের দাবি জানিয়েছে ১৪ দল।

সোমবার (১৮ জুলাই) ১৪ দলের বৈঠক শেষে জোটের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

দেশের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে রাজধানীর ইস্কাটনে বাসভবনে ১৪ দলের এ বৈঠকে অনুষ্ঠিত হয়।

নড়াইলে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়ি-ঘরে হামলার ঘটনায় ১৪ দল বিব্রত বলেও জানান তিনি।

আমু বলেন, নড়াইলের ঘটনা সাম্প্রদায়িক শক্তির উত্থান। এর আগে তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসির নগরসহ অনেক জায়গায় এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। এটি দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে। এর বাইরে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই বলেও জানান তিনি।

দেশের বিদ্যুৎ পরিস্থিত নিয়ে আমু বলেন, জ্বালানি সংকট এখন বৈশ্বিক সমস্যা। জ্বালানি তেল কিনতে হলে ব্যয় বাড়বে। এর ফলে জনগণের ওপর চাপ বাড়বে। জনগণের কথা চিন্তা করে এলাকাভিত্তিক ২/১ ঘণ্টা লোডশেডিংয়ের সরকারি সিদ্ধান্তকে ইতিবাচক বলে মনে করে ১৪ দল।

বৈঠকে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here