এ.এইচ.লিটন, পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ ফৌজদারী আইনের মামলা আদালতে গৃহীত হওয়ায় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ১১নং বৈরচুনা ইউ’পি চেয়ারম্যান মোঃ জালাল উদ্দীনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের সূত্রে জানা যায় স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের ইপ-১ অধিশাখার উপসচিব মোঃ মাহাবুবুর রহমান গত ২১ আগষ্ট ২০১৭খ্রিঃ তারিখে স্বাক্ষরিত স্মারক নং-৪৬.০০.৯৪০০.০১৭.২৭.০০১.১৬.৬৬৮ পত্রে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। পত্রে বলা হয়  ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ১১নং বৈরচুনা ইউ’পি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দীন এর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা নং ০৯/২০১৭ এর অভিযোগপত্র নং- ৪৭, তারিখ ২৮/০২/১৭ইং বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক গৃহীত হয়েছে। যেহেতু বিজ্ঞ আদালতে উল্লেখিত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিচারাধীন মামলার অভিযোগপত্র আদালত কর্তৃক গৃহীত হওয়ায় এবং তার কর্তৃক ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় মর্মে সরকার মনে করে; সেহেতু উক্ত ইউ’পি চেয়ারম্যানকে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩৪(১) মোতাবেক সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। পত্রের কপি জেলা প্রশাসক, ঠাকুরগাঁও, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পীরগঞ্জ ও সাময়িক বরখাস্তকৃত ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিনসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করেছে বলে নির্ভরযোগ্য সুত্রে জানা যায়। পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম ইফতেখারুল ইসলাম খন্দকার জানান, বিধি মতে ঐ ইউনিয়নের পরবর্তী কার্যক্রম চলবে এবং তিন দিনের মধ্যে প্যানেল চেয়ারম্যানকে ক্ষমতা হস্তান্তরের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ইউ’পি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দীন জানায় আদিবাসীর ঘরপুরা ও চাঁদাবাজি মামলায় অহেতুকভাবে ১২নং আসামী করে চার্জশীট দেওয়ায় আমাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বলে এ প্রতিবেদক কে তিনি জানায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here