প্রধানমন্ত্রীর কাছে মির্জা কাদেরের বিচার চান নিক্সন চৌধুরী

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

নোয়াখালীর বসুরহাট উপজেলার নবনির্বাচিত মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার বিচার দাবি করেছেন ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী। সংসদ সদস্যদের নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এ বিচার চেয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চরভদ্রাসন উপজেলার গাজীরটেকে একটি রাস্তার উদ্বোধন ও শীত বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ বিচার দাবি করেন এমপি নিক্সন।

অনুষ্ঠানে নিক্সন বলেন, নোয়াখালীর ওই ব্যক্তি মন্তব্য করেছেন, বাংলাদেশের সকল এমপি মদ খায়। উনি একজন মেয়র, সংসদ সদস্যদের নিয়ে এমন মন্তব্য উনি কীভাবে করেন? উনি বলেছেন নিক্সন চৌধুরী তার মামার জোরে চলে। এমপি নিক্সন চৌধুরী তার মামা শেখ সেলিমের জোরেও চলে না, তার ভাই লিটন চৌধুরীর জোরেও চলে না, এমপি নিক্সন চৌধুরী চলে জনগণের জোরে।

কাদের মির্জার কথার পরিপ্রেক্ষিতে নিক্সন বলেন, ‘আমি নাকি ভোট চুরি করে এমপি হয়েছি। এটা কি পাগলেও বিশ্বাস করবে? সারাদেশের মানুষ জানে ফরিদপুর-৪ আসনে কেমন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জনগণের ভোটে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার কাজী জাফরউল্ল্যাহকে হারিয়ে আমি নির্বাচিত হয়েছি। আমি চিনিও না জানিও না ওই লোককে। হঠাৎ কইরা ওই ব্যক্তি আমাকে নিয়ে উল্টাপাল্টা মন্তব্য শুরু করছে। তাকে পাগল ছাড়া আর কিছু বলা যায় না। উনি আওয়ামী লীগের বড় এক নেতার ভাই। সে তার বড় ভাই নিয়া উল্টাপাল্টা কথা বলে, বড় ভাবীকে নিয়ে উল্টাপাল্টা কথা বলে।’

নিক্সন চৌধুরী আরও বলেন, ‘সামনে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। আপনারা যোগ্য ব্যক্তিকে, যারা আপনাদের পাশে থাকবে, যারা আমার কাছে আপনাদের কথা বলতে পারবে তাকে ভোট দিবেন। সরকারি কর্মকর্তাদের দালালদের ভোট দিয়েন না।’

এর আগে চরভদ্রাসনের গাজীরটেক ভায়া সদরপুর বর্ডার আরসিসি সড়কের উদ্ধোধন করেন এমপি নিক্সন চৌধুরী। এরপর তিনি ওই এলাকায় শীতার্ত দরিদ্র মানুষদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।

চরভদ্রাসন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজাদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আর বক্তব্য দেন, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মো. কাউসার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আলী মোল্যা, চর অযোধ্যা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি এসএম ফরহাদ, যুবলীগের সভাপতি মোরাদ হোসেন, ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুল হাসান।