ফিরোজ আলমের অভিনব প্রতারনা অর্থ আত্মসাৎ -গ্রেফতারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

ফিরোজ আলম, পিতা-মৃত আলী আহম্মদ, গ্রাম-চরমার্টিন, পোস্ট-চর আলেকজান্দ্রা, থানা-কমল নগর, জেলা- লক্ষীপুর, বর্তমান গাজীপুরা সাতাইশ রোড, ব্যাংক কলোনী টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন এলাকা। ফিরোজ আলম অভিনব কৌশলে একাধিক বিয়ে করে, প্রত্যেকের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

 

জায়েদা বেগম মুনা জানান যে, ফিরোজ এর চতুর্থ স্ত্রী তাহার কাছ থেকে নানা ভাবে কৌশলে বিপুল পরিমান অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। এতেও ফিরোজ থেমে নেই। পপি খানম, পিতা- মো:এস্তেম ব্যাপারী, মাতা- আঞ্জুমান বেগম, সাং-উত্তর কানায়েতপুর, পো: কালিগঞ্জ, থানা-কালকিনি, জেলা-মাদারীপুর গত ১০-০২-২০১৮ ইং তারিখ বিবাহ করে এরপর থেকে জায়েদা বেগম মুনার সাথে ফিরোজ নানাভাবে অত্যাচার করে। এক পর্যায়ে মুনা টঙ্গী পশ্চিম থানায় অভিযোগ করেন।

 

অভিযোগ করার কারণে মুনার উপর অত্যাচারের মাত্রা আরও বেড়ে যায় এক পর্যায়ে নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালে মুনা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৫১৯/১৯, উক্ত মামলায় ফিরোজ এর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। টঙ্গী পশ্চি থানা পুলিশ আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত। গ্রেফতারী পরোয়ানা বিষয়টি টঙ্গী পশ্চিম থানার এস.আই আবুল হাসান নিশ্চত করেন।