বিশ্বের শীর্ষ নারী নেতৃত্বের তালিকায় শেখ হাসিনা

ডেস্ক নিউজঃ

 

বিশ্বের শীর্ষ নারী নেতৃত্বের তালিকায় স্থান পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সরকারপ্রধান হিসেবে তিনি ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, যুক্তরাজ্যের মার্গারেট থ্যাচার ও শ্রীলঙ্কার চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গার রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন।

উইকিলিকসের এক জরিপের তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় বার্তাসংস্থা ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়া এ তথ্য জানিয়েছে।

উইকিলিকসের জরিপে বলা হয়েছে, ইন্দিরা গান্ধী ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ১৫ বছরের বেশি ক্ষমতায় ছিলেন। মার্গারেট থ্যাচার ব্রিটেন শাসন করেছেন ১১ বছর ২০৮ দিন। আর চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গা শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী ও প্রেসিডেন্ট দু’ভাবেই ক্ষমতায় ছিলেন ১১ বছর ৭ দিন।

জরিপ অনুসারে, ১৯৯৭ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত ২০ বছর ১০৫ দিন দেশ শাসন করেছেন সেন্ট লুসিয়ার গভর্নর জেনারেল ডেম পারলেট লুইজি। তিনি সবচেয়ে বেশি দিন ক্ষমতায় থাকা নারী। আইসল্যান্ডের ভিগডিস ফিনবোগডোটিয়ার ক্ষমতায় ছিলেন ১৯৮০ থেকে ১৯৯৬ পর্যন্ত প্রায় ১৬ বছর। তবে বিশ্ব রাজনীতিতে এ দুই নেতা খুব বেশি পরিচিত ছিলেন না।

যুক্তরাষ্ট্রীয় দেশের মধ্যে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মেরকেল আছেন সবার শীর্ষে। তিনি ২০০৫ সাল থেকে এখনো ক্ষমতায় রয়েছেন।

এ দিকে, টানা তৃতীয়বারসহ চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা। প্রথম মেয়াদে তিনি ক্ষমতায় ছিলেন ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত। পরবর্তীতে ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে আবারও ক্ষমতায় আসেন শেখ হাসিনা। এরপর ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় লাভ করে তার দল আওয়ামী লীগ।

চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন শেখ হাসিনা। এর আগেই ১৫ বছরেরও বেশি সময় এ পদে পার করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যেখানে বাংলাদেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ছিল সাত থেকে আটশো ডলার, কয়েক বছরের ব্যবধানে তা বেড়ে ১৯শ ডলার ছাড়িয়েছে। এমনকি আওয়ামী লীগ সরকারের সময়েই দেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ উৎক্ষেপণ করা হয়েছে দেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১।

বর্তমানে ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এখন অন্যদের জন্য রোল মডেল হয়ে দাঁড়িয়েছে।