পিরোজপুর প্রতিনিধি :

 

পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার ভিটাবাড়ীয়া ইউনিয়নের ০৬ নং ওয়ার্ডের সাতঘর এলাকায় একটি দোকনঘরের সম্মূখে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগসূত্রে জানা যায় যে, সাতঘর এলাকার প্রতিপক্ষ সাজিদ জোমাদ্দার, খলিল জোমাদ্দার, রাশিদা বেগম, মিম আক্তার সহ কয়েকজন দুষ্কৃতিকারী জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মোঃ রায়হান জোমাদ্দার এর উপর অতর্কিত হামলা চালায়। রায়হান জোমাদ্দার এর মা মোসাঃ রুনু বেগম জানান, প্রতিপক্ষের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। কিছুদিন পূর্বে উভয় পক্ষ উপস্থিত থেকে এজমালি সম্পত্তির সুপারি পাড়িয়া ভাগ বন্টন করিয়া বুঝিয়া নেয়।

কিন্তু গত বৃহস্পতিবার সকালে সাজিদ জোমাদ্দার ঐ ভাগ বন্টনকে কেন্দ্র করে বিরোধ সৃষ্টি করে হামলা চালায়। এক পর্যায় প্রতিপক্ষ সাজিদ জোমাদ্দার হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড দ্বারা আমার ছেলে রায়হান এর মাথা লক্ষ করিয়া আঘাত করিলে আমার ছেলে হাত দিয়া ঠেকাইলে তাহার ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলের গোড়ায় লাগিয়া রক্তাক্ত ফাঁটা জখম হয় এবং অন্যান্য প্রতিপক্ষরা লাঠি দিয়ে আমার ছেলেকে এলোপাথারী পিটাইয়া এবং মাটিতে ফেলাইয়া পাড়াইয়া চাপা ফুলা জখম করা সহ তাহার সাথে থাকা মোবাইল ফোন এবং পকেটে থাকা নগদ টাকা নিয়া যায়। আমার মেয়ে রুমি আক্তার সেখানে গিয়ে বাঁধা প্রদান করিলে তাহার গলায় থাকা একটি স্বর্নের চেইন নিয়া যায়।

আশে পাশের লোকজন আসিয়া তাদেরকে উদ্ধার করিয়া অটোযোগে ভান্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। এ ব্যপারে ভান্ডারিয়া থানায় রুনু বেগম বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here