Amar Praner Bangladesh

ভূমিদস্যু কর্তৃক প্রতিবন্ধীর সম্পত্তি জাল দলিল করে দখলের চেষ্টার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

মোঃ আশিকুর রহমান, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ঃ সাতক্ষীরা সদরের কুলতিয়ায় ভূমিদস্যু কর্তৃক প্রতিবন্ধী বিধবার সম্পত্তি জাল দলিল সৃষ্টি করে অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা ও মারপিটের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করনে সাতক্ষীরা সদরের কুলতিয়া গ্রামের মৃত মোধাররফ হোসেন এর স্ত্রী প্রতিবন্ধী রহিমা খাতুন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমি একজন শারিরীক প্রতিবন্ধী বিধবা মহিলা। আমি আমার স্বামীর ২য় স্ত্রী। প্রথম স্ত্রী রাজিয়া হোসেন তার ছেলে শরিফুল হোসেন, লিপি আক্তার শান্তা তাদের ভাগের সম্পত্তি ২০১২ সালের বিক্রয় করে। এসময় আমার ভাগের সম্পত্তি আমি বিক্রিয় করিনি। বিগত ২০১১ সালের এপ্রিল মাসে আমার স্বামী মারা যায়। মৃত্যুর পূর্বে কুলিতিয়া মৌজায়, জে এল নং-১০ এস এ ১৬৪, ডিপি ২০৫ সাবেক দাগ ৫৭২, হাল ৭৩০ ও ৭৩১ দাগে ১একর ২৬ শতকের মধ্যে আমার নামে ২০ শতক সম্পত্তি লিখে দিয়ে যান আমার স্বামী। স্বামীর মৃত্যুর পর আমি এক পুত্র ও কন্যা সন্তান নিয়ে ভালুকাচাঁদপুর পোষ্ট অফিসে পোস্ট মাস্টারের চাকুরি করে স্বামীর ভিটের (আমার অংশে) উপর অতিকষ্টে বসবাস করে আসছিলাম। সম্প্রতি গত ২০/০১/২০১৮ তারিখে একই এলাকার ভালুকা চাঁদপুর এলাকার আনারুল সরদারের ছেলে ভুমিদস্যু রুহুল আমিন টুটুল আমার ভাগের সম্পত্তির উপর প্রবেশ করে উক্ত সম্পত্তি তার বলে দাবি করেন। আমি তো বিক্রয় করিনি। তাহলে তুমি কিভাবে জমি ক্রয় করলে, তখন টুটুল একটি জাল দলিল বের করে। অথচ আমি কখনো কোন দলিলে স্বাক্ষর প্রদান করিনি। উক্ত দলিলে থাকা স্বাক্ষরের সাথে আমার স্বাক্ষরের কোন মিল নেই। সে সময় টুটুল হুমকি প্রদর্শন করে বলে কয়েকদিন মধ্যে আমার জমি খালি করে দিবি। তা না হলে তোদের স্ব পরিবারের হত্যা করে আমি জমির দখল নেবো বলে চলে যায়। এঘটনায় স্থানীয়দের কাছে লিখিত অভিযোগ করলেও তারা কোন সমাধান করে দেইনি। নিরুপায় হয়ে বিভিন্ন দপ্তরে গিয়ে ধর্ণা দিলেও কারো কোন সহযোগিতা পায়নি। গত ৬ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে সম্পত্তির উপর একটি রান্নাঘর তৈরী করতে গেলে রুহুল আমিন টুটুল ও তার পিতা আনারুল বাধা দেয় এবং ৭ এপ্রিল সকাল ১০টার দিকে রুহুল আমিন টুটুল তার স্ত্রী মোসলেমা খাতুন ও আনারুল লাটিসোটা ও কুড়াল নিয়ে আমার বাড়িতে হঠাৎ প্রবেশ করে আমাকে জমি ছেড়ে দিতে বলেন। আমি অস্বীকৃতি জানালে তারা আমাকে ও শিশু সন্তানদেরও মারপিট করে। আমার ডাক চিৎকারে আমার বোন তার কন্যাসহ স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। যাওয়ার সময় তারা আমাকে বলে মামলা করতে গেলে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেবো। তারা যে কোন মুহুর্তে আমার ও আমার শিশু সন্তানদের জীবনের বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারে। আমি অসহায় প্রতিবন্ধী বিধবা নারী। আমি আমার শিশু সন্তানদের উক্ত ভূমিদস্যু টুটুল ও তার পিতার ভয়ে ভীতুসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছি।
এব্যাপারে ভূমিদস্যুদের হাত থেকে সম্পত্তি রক্ষা ও শিশু সন্তানসহ নিজের জীবনের নিরাপত্তা পেতে পুলিশ সুপারসহ সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।