মোঃ আবু বকর সিকদার, মির্জাপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ
“টেকনিক্যাল কাজ করি, টেকনিক্যাল বেতন স্কেল চাই” এই মূল স্লোগানকে সামনে রেখে সারাদেশের মতো টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে টেকনিক্যাল বেতন স্কেল ও পদমর্যাদাসহ ৪দফা দাবি আদায়ের লক্ষে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি গত মঙ্গলবার সকালে দ্বিতীয় দিনেও পালন করছেন বাংলাদেশ হেলথ এসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশন মির্জাপুর উপজেলা শাখা। তাদের দাবিসমূহগুলো হচ্ছে টেকনিক্যাল বেতন স্কেলসহ পদমর্যাদা দিতে হবে, মাঠ/ভ্রমণ ভাতা ও ঝুকি ভাতা মূল বেতনের ৩০% হার দিতে হবে, প্রতি ৬,০০০জনসংখ্যার বিপরীতে ১জন স্বাস্থ্য সহকারী নিয়োগ প্রদানের নিশ্চয়তা, ১০% পোষ্য কোটা প্রবর্তন করতে হবে। এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৮সালের ৬ই ডিসেম্বর স্বাস্থ্য সহকারীদের মহা সমাবেশে টেকনিক্যাল পদমর্যাদাসহ বেতন বৈষম্য নিরসনে ঘোষণা দিয়েছিলেন। কিন্তু স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, অর্থ, জনপ্রশাসন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধির সমন্বয়ে গঠিত উচ্চ পর্যায়ের একাধিক কমিটির অনুকূল সিদ্ধান্ত থাকা স্বত্বেও আদৌ তা বাস্তবায়ন হয়নি।
এ বিষয়ে, উপজেলা স্বাস্থ্য সহকারী এসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ উজ্জল মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমানের সাথে কথা হলে তারা বলেন, এ কর্মবিরতির জন্য শিশু ও গর্ভবতী মহিলা টিকা এবং স্বাস্থ্য সো(মাঠ পর্যায়ে) থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এতে করে মা ও শিশু স্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়ছে। তারা আরও বলেন, দাবি আদায়ের আগ পর্যন্ত এ কর্মবিরতি চলবে। স্বাস্থ্য বিভাগে সফলতা অর্জনের মূল কারিগর স্বাস্থ্য সহকারী এ জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণার বাস্তবায়ন দাবি জানান সকল স্বাস্থ্য সহকারী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here