আন্তর্জাতিক মহলের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে একের পর এক পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। আর তারই জের ধরে এবার ওয়াশিংটন জানিয়ে দিল, যেকোনো মুহূর্তে সামরিক পদক্ষেপ নিতে পারে যুক্তরাষ্ট্র।

পিয়ংয়ংয়ের বিরুদ্ধে যদি নয়া নিষেধাজ্ঞা পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধে ব্যর্থ হয় তবে সামরিক পদক্ষেপ নেয়ার কথা ভাববে ওয়াশিংটন।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়াকে বারবার এই বিষয়ে শান্ত থাকতে বলা হচ্ছে। এমনকি, আলোচনার মাধ্যমেও সমস্ত সমস্যা সমাধান করার কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু তা না করে একের পর এক মিসাইলের পরীক্ষা করে যাচ্ছেন উত্তর কোরিয়া। কিন্তু নয়া এই নিষেধাজ্ঞা না মানলে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালানো ছাড়া আর কোনো রাস্তা খোলা থাকবে না বলে হুঁশিয়ারি উত্তর কোরিয়ার।

জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি এবং মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এইচআর ম্যাকমাস্টার সাংবাদিকের আরও বলেন, জাতিসংঘের নতুন নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হতে সময় লাগবে। সেই সময় শেষ হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র সামরিক ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে ভাবনা-চিন্তা করবে। হ্যালি বলেন, উত্তর কোরিয়ার বিষয়টি শিগগিরই মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাথিসের বিষয়ে পরিণত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here