কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং নতুন রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় বন্য হাতির আক্রমণে বাবা-ছেলের মৃত্যু হয়েছে। রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে কুতুপালং মধুরছরা গুলশানপাহাড়ে মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটে।

এসময় আরো ৩ রোহিঙ্গা নারী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিহতরা হলো, শামছুল আলম (৫৫) ও তার দু’বছর বয়সী ছেলে ছৈয়দুল আমিন। শামছুল আলম মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের বলিবাজার ফকিরের ডেইল এলাকার নুরুল আলমের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী রোহিঙ্গা আব্দুল হামিদ সাংবাদিকদের জানান, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে উখিয়া টিভি রিলে কেন্দ্রের পাশে অবস্থান নিয়েছিল তারা। শনিবার সকালে তাদের বাড়ি ঘর অন্যত্রে সরিয়ে নেওয়ার জন্য উপজেলা প্রশাসন মাইকিং করলে তারা সেখানে চলে যায়। রাতে বন্যহাতির কবলে পড়ে এরা নিহত হয়।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. কায় কিসলু স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে জানান, রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে হঠাৎ হাতির পাল আক্রমণ করে। ওখানে সম্প্রতি ঘর করে বাস করা রোহিঙ্গারা হাতির পাল তাড়াতে চেষ্টা করে। এসময় হাতি উপস্থিত লোকজনের উপর আক্রমণ করে বসে। সামনে পড়ে যাওয়ায় শামছু ও তার ছেলেকে স্যুড়ে পেঁচিয়ে আঁছাড় মারে উত্তেজিত হাতি। এ ঘটনায় আরো কয়েকজন নারী আহত হয়েছে বলে খবর পেয়েছি। যাদের কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here