শিবচরে ইন্নি হত্যার পরেই ঘুরে বসেছে সচেতন মহল

প্রকাশ : বুধবার, মে ১৫, ২০১৯ পূর্বাহ্ণ ১:৪৬

 

মিরাজ মোল্লা :

 

মাদারীপুরের শিবচরে শেখ ফজিলাতুননেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের ছাত্রী ইন্নি হত্যার পরেই ঘুরে বসেছে সচেতন মহল।জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরীর নির্দেশে ১৪ মে মঙ্গলবার সকাল থেকে শিচবর পৌরসভার প্যাানেল মেয়র ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আ. কাদের খান মিলুর সভাপতিত্বে, ও জয়বাংলা যুব পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা পিটার খানের সঞ্চালনায় শেখ ফজিলাতুন নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের মাঝে , জয়বাংলা যুব পরিষদের উদ্যোগে শুরু হইছে মাঝে সচেতনামূলক ক্যাম্পিং।

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন, শিবচর মহিলা বিষক কর্মকর্তা হামিদা খাতুন, ফজিলাতুন নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, মাদারীপুর জেলা পরিষদের সদস্য শাহরিয়ার হাসান (রানা খান), জেলা যুবলীগের সহ সভাপতি সহিদুল খান(রুশু) জেলা যুবলীগে সাংগঠনিক রুবেল মাদবর, বরহামগঞ্জ ললিত কলা একাডেমির প্রতিষ্ঠিাতা আবুল খায়ের খানসহ বিভিন্ন সংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এসময় বক্তরা ইভটিজিং,বাল্যবিবাহ,মাদক, এবং অপ্রাপ্ত বয়ষে মোবাইল ব্যাবহারের বিভিন্ন ক্ষতিকর দিক তুলে ধরেন।এবং ধর্ষণের শিকারের নিহত স্কুল ছাত্রী ইন্নির বিদায়ী আত্মার মাগফিতার কামনা করে এক মিনিটি দাড়িয়ে, নিরবতা পালন করে। এবং ইন্নির সাথে জড়িতদের কঠর শাস্তি দাবি করেন।বক্তারা আরো বলেন আমাদের চীফ হুইপের নিদের্শকৃত সচেতনতা মূলক ক্যাম্পিং উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীদের মাঝে চলমান থাকবে।

 

উল্লেখ্য গত ৫মে শেখ ফজিলাতুননেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী ইন্নি আক্তারকে শিবচরে এক আবাসিক হোটেল, ৭১ উৎসব এর ৩০৫ কক্ষে থেকে থেকে রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশের ধারণা ধর্ষণের কারণে গোপনাঙ্গ দিয়ে অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারনে তার মৃত্যু হয়েছে।এই ঘটনার সাথে জড়িত ৩জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।