শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে হামলা: ৯ জনের ফাঁসি, ২৬ জনের যাবজ্জীবন

পাবনা প্রতিনিধি:

 

পাবনার ঈশ্বরদীতে শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে গুলিবর্ষণ ও হামলা মামলার রায়ে নয়জনের ফাঁসি দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ২৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১৩ জনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

 

বুধবার (৩ জুলাই) সকালে পাবনার অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক রুস্তম আলী এই রায় দেন। এর মাধ্যমে ২৪ বছর আগে ঘটে যাওয়া ট্রেনে হামলার ঘটনার মামলার রায় দেওয়া হলো।

 

আলোচিত এই মামলার সব আসামি বিএনপির নেতাকর্মী। গত ৩০ জুন এ মামলায় বিএনপির ৩০ নেতাকর্মীর জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠান আদালত। এছাড়া আদালতে হাজিরা না দেওয়ায় এদিন বিএনপির আরও ২২ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৪ সালে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর উত্তরাঞ্চলে দলীয় কর্মসূচিতে ট্রেনে করে খুলনা থেকে সৈয়দপুর যাচ্ছিলেন। ট্রেনটি পাবনার ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন স্টেশনে প্রবেশের সময় শেখ হাসিনার ট্রেনবহরকে লক্ষ্য করে স্থানীয় বিএনপির নেতা-কর্মীরা অতর্কিত গুলি, বোমাবর্ষণ ও হামলা চালান। এ সময় পুলিশ স্থানীয় বিএনপির নেতা-কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে গেলে তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করেও বোমা নিক্ষেপ করেন। বোমার আঘাতে দায়িত্বে নিয়োজিত তৎকালীন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন ও পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্য আহত হন। এ ঘটনায় ঈশ্বরদী রেলওয়ে পুলিশ বাদী হয়ে ওই দিন বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে মামলা করেন। পরে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়।

 

তদন্ত শেষে এই মামলায় ৫২ জনকে আসামি করে আদালতে চূড়ান্ত অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। দীর্ঘ ২৪ বছর ৯ মাস ৯ দিন পর বুধবার এ মামলার রায় হলো।