বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৫৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

সরিষাবাড়ীতে চুরির অপবাদে দিনমুজুরের বসত ঘর উচ্ছেদ

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ৪ Time View

তৌকির আহাম্মেদ হাসু , সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে দিন মুজুরের ছেলের বিরুদ্ধে চুরির অপবাদ এনে বসত ঘর উচ্ছেদ করে নিয়ে গেছে প্রভাবশালীরা। ফলে ১১ ডিসেম্বর থেকে তিন দিন ধরে ৩ সদস্য’র দিনমুজুরের পরিবার খোলা আকাশে বসবাস করছেন। ঘটনাটি উপজেলার  ভাটারা ইউনিয়নের ভেবলা গ্রামে ঘটেছে। স্থানীয় ও ভুক্তভোগী এবং প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায়-সরিষাবাড়ী উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের ভেবলা গ্রামের মোবারক হোসেন এর বসত ঘরে তার মেয়ে লিলি বেগম,শিশু ছেলে সহ ঘরে ঘুমন্ত থাকাবস্থায় ১০ ডিসেম্বর গভীর রাতে সিদ কেটে ঘরে প্রবেশ করে মূল্যবান জিনিস পত্র চুরি করে নিয়ে যায় চোরেরা।ওই চুরির ঘটনায় একই গ্রামের পাশের বাড়ীর দিনমুজুর জালাল ্উদ্দিনের ছেলে মানিক মিয়া (১৯)জডিতে’র অভিযোগ তুলেন স্থানীয়’র একাংশ।এ নিয়ে গত ১১ ডিসেম্বর সকালে এলাকার মাতাব্বর নেত্রোকোনা সদর থানার ডিবি’র এস আই নূরুল ইসলামের পিতা আব্দুস সাত্তার এর সভাপতিত্বে মাতাব্বর রফিক,৯ নং ওয়ার্ডে’র ইউপি সদস্য বাদল মিয়া,গ্রামীন পরিবেশ সংস্থার কর্মী বাবলু মিয়া,সাবেক ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন আনু সহ গ্রামের একটি অংশ গ্রাম্য সালীশ বসে হন্দু’র বাড়ী’র ওঠানে। গ্রাম্য সালীশের এক সিদ্ধান্তে দিনমুজুর জালাল উদ্দিন এর বসত ঘর উচ্ছেদ ও এলাকা থেকে বিতাডিত করার সিদ্ধান্ত নেন সালীশীয়ানরা।এ সিদ্ধান্তে’র প্রেক্ষিতে সালীশ শেষে তাৎক্ষনিক সকাল ১১ টার দিকে চোর সন্দেহে অভিযুক্ত মানিক মিয়া’র পিতা জালাল উদ্দিন(৪৫) ডেকে নিয়ে  কাঠাল গাছের সাথে বেধে মারপিট করা হয় এবং রমনী বেগম(৪০) কে মেহগনি গাছের সাথে রশিতে বেধে রাখা হয় হন্দু’র বাড়ীর ওঠানে।পরে প্রভাবশালীর নির্দেশে ৫০/৬০ জন লোক দিন মুজুরের দো চালা টিনের ঘর উচ্ছেদ করে নিয়ে যায় ।এ ছাড়াও ছনের রান্না ঘরটিও গুডিয়ে দেয়া হয়।ঘরে থাকা শীতবস্ত্র লেপ,তোষক,বালিশ কাপড় চোপড়,আনন্দ স্কুলের ৪র্থ শ্রেনীর শিক্ষার্থী জাকিয়া খাতুনের বই আগুন ধরিয়ে দেয়ার চেষ্টার এক পর্যায়ে পাশের দুলাল এর পুকুরে ফেলে দেয় এবং কোন আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করবে না মর্মে সাদা ষ্ঠাম্পে স্বাক্ষরও নিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী রমণী বেগম।এ ঘটনায় দিন মুজুর জালাল উদ্দিন তার স্ত্রী রমণী বেগম,কণ্যা জাকিয়া খাতুন কে নিয়ে খোলা আকাশের নিচে বসতভিটায়  মানবেতর দিনাতিপাত করছি। ক্ষতিগ্রস্থ মোবারক হোসেন এর  মেয়ে লিলি বেগম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,এলাকার লোকজন বলেছে আমার ঘরে মানিক মিয়া চুরি করেছে। সে জন্য বসত ঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মানিক মিয়া’র মা রমণী বেগম বলেন-মিথ্যা অভিযোগে আমাকে ও আমার স্বামীকে গাছের গাছের সাথে বেধে মারধর ও বসত ঘর উচ্ছেদ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন,চুরির ঘটনার পূবেই আমার ছেলে ঢাকায় চলে গেছে। এলাকার মাতাব্বর আব্দুস সাত্তার বলেন, মানিক মিয়ার চুরির উপদ্রপ থেকে রক্ষার জন্য দিন মুজুর জালাল এর পরিবার পরিজন এলাকায় না থাকলে চুরি হবে না। তাই চেয়ারম্যান রোবহান উদ্দিন বাদল ও মেম্বার বাদল মিয়া ও আমার ছেলে’র কাছে বলেই উচ্ছেদ করা হয়েছে।  জানতে চাইলে ভাটাবা ইউপি চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন বাদল বলেন-এলাকায় বিভিন্ন ধরনের চুরির সাথে জডিত থাকায় এলাকার লোকজন বসত ঘর উচ্ছে করেছেন। সরিষাবাড়ী  থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) তাহেরুল ইসলাম তাহের বলেন- এ ঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দোষীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

এই সাইটের কোন লেখা কপি পেস্ট করা আইনত দন্ডনীয়

Headlines