সিরাজগঞ্জে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ মাইক্রোবাসের ৯ যাত্রী নিহত

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

 

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বিয়ের মাইক্রোবাসে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনে ও শিশুসহ অন্তত ৯ জন নিহত হয়েছেন। সোমবার বিকেল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার সলপ স্টেশনের উত্তরে পঞ্চক্রোশী আলী আহম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে উন্মুক্ত লেভেল ক্রসিং পারাপারের সময় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী পদ্মা এক্সপেসের সঙ্গে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মাইক্রোবাসের চার যাত্রীসহ আরও ১০ জন আহত হন।

 

নিহতদের মধ্যে বর সদর উপজেলার কান্দাপাড়া গ্রামের আলতাব হোসেনের ছেলে রাজন হোসেন (২৫) ও কনে উল্লাপাড়ার চরঘাটিনার সুমাইয়া খাতুনের (২০) পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহত বাকিদের নাম-পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উল্লাপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কউশিক আহমেদ বলেন, রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনটি উল্লাপাড়ার সলক রেলক্রসিং এলাকায় একটি বরবাহী মাইক্রোবাসকে ধাক্কা দেয়। এতে বর-কনেসহ মাইক্রোবাসের নয় যাত্রী নিহত হন। সেই সঙ্গে ৬ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

 

তিনি আরও জানান, অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ের কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। ওই ক্রসিংয়ে কোনো ব্যারিয়ার বা বার্জ ছিল না। এমনকি সেখানে রেল বিভাগের কোনো পাহারাও নেই।

 

ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার কাজ শুরু করেছেন। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।নিহতদের মধ্যে পুরুষ ছয়জন, নারী দুইজন ও শিশু একজন, যাদের মধ্যে দুইজন বর-কনে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি উল্লাপাড়া থানার পঞ্চক্রোশীতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বর-কনে নিয়ে সদর উপজেলার কান্দাপাড়ায় যাচ্ছিল। ওই বরযাত্রীবহরে দুটো মাইক্রোবাস ছিল। প্রথম মাইক্রোবাসে ছিলেন বর-কনে, বরের বোন, বোনের স্বামী, মেয়েপক্ষের এক আত্মীয়। বরযাত্রী বহরে থাকা অপর মাইক্রোবাসটি পেছনে ছিল। সামনের মাইক্রোবাসটি রেলক্রসিং পার হওয়ার চেষ্টা করলে এ সময় ট্রেনের ধাক্কা লাগে।

 

সিরাজগঞ্জ জিআরপি থানার ওসি হারুন মজুমদার ও দমকল বাহিনীর সহকারী উপপরিচালক আবদুল হামিদ জানান, বরযাত্রীবাহী দুটি বিয়ের গাড়ি উল্লাপাড়ার ঘাটিনা থেকে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়া কান্দাপাড়ায় যাচ্ছিল। সলপ স্টেশনের উত্তর পাশে উন্মুক্ত লেভেল ক্রসিং পারাপারের সময় একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-চ-১৫-৪১৫৯) ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা খেলে বর-কনেসহ কমপক্ষে ৯ জন মারা যান। আহত হন ট্রেনের আরোহীসহ কমপক্ষে ১০ জন। তাদের মধ্যে চারজনকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। লাশ উদ্ধারের পর আপাতত সলপ স্টেশনের পাশে রাখা হয়েছে। বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর আক্রোশ থেকে ট্রেনটি রক্ষায় কাজ করছে দমকল বাহিনী ও পুলিশ।

 

এ  ঘটনায় রাজশাহীর সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।