আ:রশিদ তালুকদার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :

 

ষড় ঋতুর রাণী শরৎ। কেউ কেউ আদর করে বলেন রুপের রাণী।শরতে নদী ও খাল কিংবা বিলের ধারে শুভ্র কাশ ফুলের হাত ছানি উপেক্ষা করে সাধ্যকার ।এ ঋতুর সন্ধার অস্তগামী সূর্যের রঙিন প্রভায় প্রকৃতি সজ্জিত হয় অপূর্ব রুপে। এমনি এক সন্ধ্যায় পালিত হলো কবি বুলবুল খান মাহবুবের ৮০ তম জন্মবার্ষিকী।

গত ৯ সেপ্টেম্বর বিকাল ৫ টার আগেই শরতের স্নিগ্ধ বাতাসে ভেসে আসা নানা ফুলের সৌরভ মাখা হৃদয়ে কবিকে জন্ম দিনের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় অভিষিক্ত করতে আসেন শিল্প সাহিত্য সেবী ও ভক্ত অনুরাগীরা।গত ৭ সেপ্টেম্বর বুধবার ৮০ বছর পূর্ন হয়েছে ষাট দশকের অন্যতম এ কবির।

টাঙ্গাইল শহরস্থ কবির নিজ বাসভবনে জন্মদিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ‘ঘাটাইল সাহিত্য পরিষদ’।পরিষদের সাধারন সম্পাদক বিশিষ্ঠ লেখক ও গবেষক জুলফিকার হায়াদারের স্বাগত বক্তব্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু ।তিনি তার বক্তব্যে পরিষদের সবার পক্ষ থেকে কবিকে অভিন্দন জানিয়ে বলেন,আপনি আমাদের যেমন স¦রণীয় বরনীয় মানুষ,তেমনি সংকট কালের পথ প্রদর্শক।এর পর শুরু হয় কবি বুলবুল খান মাহবুবের প্রিয়জন,স্নেহ ভাজন অনুরাগী ব্যক্তি ও বিভিন্ন সংগঠনের শুভেচ্ছা জানানোর পালা।এ সময় ফুলে ফুলে ভরে উঠেছিল মঞ্চ।

শ্রদ্ধা জানাতে এসেছিলেন,টাঙ্গাইল সদর আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ছানোয়ার হোসেন,টাঙ্গাইল পৌর সভার মেয়র এসএম সিরাজুল হক আলমগীর,টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আনিছুর রহমান দাদু ভাই,টাঙ্গাইলের পাঠক নন্দিত কাগজ সাপ্তাহিক পূর্বাকাশ সম্পাদক খান মোহাম্মদ খালেদ,টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক খন্দকার আশরাফউজ্জামান স্মৃতি,বিশিষ্ঠ গণসংগীত শিল্পী এলেন মল্লিক ,টাঙ্গাইল বার্তার সম্পাদক জেড আই খান,টাঙ্গাইল সাহিত্য সংসদের সাধারন সম্পাদক নূরুল ইসলাম বাদল,সংগীত শিল্পী ফিরোজ আহমেদ বাচ্চু,নজরুল গবেষনা পরিষদের সভাপতি কবি আল রুহী,মানুষের কল্যাণে মানুষ –এর সভাপতি পারুল খান মাহবুব প্রমুখ।তারা বুলবুল খান মাহবুবের কর্মকৃর্তির সংক্ষিপ্ত সার তুলে ধরেন।উল্লেখ করেন সাহিত্য সংস্কৃতি ও রাজনীতি অঙ্গনে তার অবদানের কথা।

ঘাটাইল সাহিত্য পরিষদের যুগ্ন সম্পাদক কবি আজাদ কামালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক ।তিনি তার বক্তব্যে বলেন,বুলবুল খান মাহবুব সাহিত্য সংস্কৃতি সেবীদের আলোক বর্তিকা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন।মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে যে কয়জন কবি হানাদারদের বিরোদ্ধে রুখে দাড়াতে কলম ধরেছিলেন তিনি তাদের অন্যতম।তার জীবন ও কর্মকে আমাদের স্বরণে রাখতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে টাঙ্গাইল ৩ (ঘাটাইল) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আতাউর রহমান খান বলেন ,সমাজে কিছু কিছু মানুষ থাকেন কেবল দেওয়াই তাদের কাজ ।প্রাপ্তির দিকে তাদের লক্ষ থাকে না ।বুলবুল খান মাহবুব তেমনি একজন মানুষ ।

বাংলার সুকান্ত খ্যাত চির তারুণ্য কবি বুলবুল খান মাহবুব আবাল বৃদ্ব বনিতার অভিনন্দন গ্রহন করে বলেন সাহিত্য -সংস্কৃতি ও রাজনীতির কর্মী আমি ।সারা জীবন এখানেই আত্নতৃপ্তি খুঁজেছি এখনো তাই।যা সত্য বলে জেনেছি অপ্রিয় হলেও বলার চেষ্টা করেছি।অনেকের ভালোবাসা পেয়েছি।এই ভালোবাসাকেই গ্রহন করেছি জীবনের শ্রেষ্ঠ পুরস্কার বলে।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here