অবৈধ দখলদারের হাত থেকে সরকারী দীঘি এবং কবরস্থান রক্ষার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন

 

 

গাজী মামুনঃ

 

সরকার যেখানে দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে ব্যস্ত রাখছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে, পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে এরকম ব্যবসায় লিপ্ত হচ্ছে অর্থলোভী নরপশুরা, আর এদেরকে সহযোগিতা করছে একদল কুচক্রী মহল, এই সমস্ত লোকদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করার দাবি স্থানীয় জনগণের।

গাজীপুরের টঙ্গীর পশ্চিম থানা এলাকায় খাঁপাড়ায় নির্ধারিত কবরস্থান ও সরকারি খাস জমি ভূমিদস্যুর হাত থেকে রক্ষার দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। ২৪ সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় যুবলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন মোল্লার উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

সমাবেশে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর মহানগর যুবলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন মোল্লা। তিনি বলেন, একটি কুচক্রিমহল কবরস্থানের জায়গায় দখল করে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণে মেতে উঠেছে।তিনি ভূমিদস্যুর উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি এবং আপনার পিছনে যারা মদতদাতা রয়েছে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। এলাকার স্বার্থে কবরস্থান রক্ষার্থে যে কোন ধরনের পদক্ষেপ এলাকার জনগণকে সাথে নিয়ে এই অবৈধ স্থাপনা যতক্ষণ না উচ্ছেদ হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমি এলাকার জনগণের পাশে আছি এবং থাকবো ইনশাআল্লাহ।

খাঁ পাড়া স্কুলের প্রিন্সিপাল টঙ্গী পাইলট স্কুলের শিক্ষক ইউসুফ খাঁ বলেন, এখানে প্রতিনিয়ত সামাদ খানের নেতৃত্বে কিছু বখাটে ছিনতাইকারী, মাদক কারবারী এখানে রিকশার গ্যারেজে মাদক ও জুয়ার আসর বসায়। আমরা প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করছি এবং অবৈধ দখলদার ভূমিদস্যুকে বলবো আপনি অতি দ্রুত স্থাপনা সরিয়ে নিবেন। অন্যথায় এলাকার সাধারণ জনগণ সাথে নিয়ে আমরা কঠোর অবস্থানে যেতে বাধ্য হবো।

স্থানীয় ব্যক্তিবর্গগণের বক্তব্য, বর্তমানে এই খাস জায়গায় প্রায় ৩ শতাধিকের অধিক মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন করা হয়েছে। এই জায়গাটিকে আবারো ভূমিদস্যু সামাদ পর্যায়ক্রমে প্রায় ২ বিঘা পরিমাণ সম্পত্তি বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করে সেখানে অবৈধ রিকশার গ্যারেজ, বিভিন্ন কারখানা ও দোকানপাট ভাড়া দিয়ে ব্যক্তি স্বার্থ হাসিল করছে।ফলে, কবরস্থানের পরিবেশ সুরক্ষার মান ও জায়গা ক্রমেই কমতে শুরু করেছে। ফলে ভবিষ্যতে খাঁ পাড়া কবরস্থানে অত্র এলাকার বাসিন্দাদের মৃত-ব্যক্তিদের দাফনকার্য বিঘ্নিত হওয়ার আশংঙ্খা দেখা দিচ্ছে। এই আশংঙ্খা কাটিয়ে উঠতে হলে কবরস্থানের অবৈধ বে দখলী জায়গা উদ্ধার করণ সহ কবরস্থানের চারপাশে প্রাচীর নির্মাণের দাবিতে খাঁ পাড়া স্থানীয় ব্যক্তিবর্গগণ ।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাতরং এর পক্ষ থেকে জসিম মাষ্টার বলেন, খাঁপাড়া দীঘি ৩ একর ৮০ খাস খতিয়ানভুক্ত সম্পত্তি। এই সম্পত্তি এলাকার জনসাধারণের কল্যাণে গণকবরস্থান, খেলার মাঠ নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছিলেন সাবেক স্থানীয় কাউন্সিলর শেখ মোহাম্মদ আলেক।তৎকালীন সময় স্থানীয় ভূমিদস্যু সামাদ খান জোরপূর্বক বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করে তার ব্যক্তি স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য দখল অব্যাহত রেখেছিল। তখন এলাকার সুশীল সমাজ থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধিসহ সকল ব্যক্তিবর্গের কঠিন আন্দোলনের মুখে পড়ে জেলা জজ এর হস্তক্ষেপে ২০১৭ সালে উচ্ছেদ করা হয়।

উক্ত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন মুক্তি যুদ্ধা আনোয়ার সর্দার,খাঁ পাড়া বিদ্যানিকেতনের প্রধান শিক্ষক হাতেম খাঁ,স্থানীয় বাসিন্দা কাদের খাঁ,যুবলীগ নেতা মোস্তাফিজুর,যুবলীগ নেতা আকতার,যুবলীগ নেতা খোকন,এলাকার সুশীল সমাজ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন এবং সাংবাদিকবৃন্দ।