Amar Praner Bangladesh

আওয়ামীলীগকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আনতে হলে তৃণমূল শক্তিশালী করার বিকল্প নেই : সালাম মূশের্দী এমপি

 

 

মোল্লা জাহাঙ্গীর আলম, রুপসা প্রতিনিধি :

 

খুলনা- ৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মূর্শেদী বলেছেন, আওয়ামী লীগের হাতেই দেশ নিরাপদ, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

আওয়ামী লীগের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা সবসময় সঠিক সিদ্ধান্ত নেয়। নিজেদের জীবন পণ করেই তারা এই সংগঠনকে ধরে রেখেছে।

আওয়ামী লীগ তৃনমূল নির্ভর দল। তাই শেখ হাসিনাকে জিতিয়ে আনতে হলে তৃণমূল শক্তিশালী করার বিকল্প নেই। একটা সরকার সফলভাবে কাজ করতে পারবে তখনই যখন তার দল সুসংগঠিত থাকে। বিভিন্ন সময় দলের ক্রান্তিলগ্নে তৃণমূল আওয়ামী লীগের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে এমপি বলেন, ‘আজকে বাংলাদেশে আওয়ামী লীগ একটা শক্তিশালী সংগঠন।

এদেশের রাজনীতিতে কেউ যদি কিছু শিখিয়ে থাকে সেটা আওয়ামী লীগই প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে করে যাচ্ছে। এই ঐতিহ্যটা আমাদের ধরে রাখতে হবে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেই কুচক্রী মহল চেয়েছিল বাংলাদেশ থেকে আওয়ামী লীগের নাম মুছে ফেলার।
কিন্তু আল্লাহ যদি সহায় থাকে কেউ কিছু করতে পারেনা। মহান সৃষ্টিকর্তা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানাকে বাঁচিয়ে রেখে ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন পূরণ করার জন্য। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পূরণ করে যাচ্ছে এদেশের মানুষকে সাথে নিয়ে। মানুষের যে আস্থা-বিশ্বাস, সমর্থন আমরা পেয়েছি, বাংলাদেশের মানুষ যেটা জানেন একমাত্র আওয়ামী লীগ থাকলে উন্নয়ন হয় সে কথা প্রমাণ করতে পেরেছি।

আজকে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল।বাংলাদেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমরা যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পেরেছি, সেটা শুধু আমাদের এখানেই না সারা বিশ্বব্যাপী খুবই সমাদৃত এবং স্বীকৃত। মঙ্গলবার ২ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা ও রূপসা উপজেলা আওয়ামীলী সহযোগী সংগঠণের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স মিলনায়তনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিপরিষদ চেয়ারম‍্যান কামাল উদ্দিন বাদশার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অধ্যক্ষ ফ ম আব্দুস সালাম, জাহাঙ্গীর হোসেন মুকুল, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য আব্দুল মজিদ ফকির, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মোতালেব হোসেন।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক এবিএম কামরুজ্জামানের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আরিফুর রহমান মোল্লা,মোরশেদুল আলম বাবু, আইয়ুম মল্লিক বাবু,নজরুল ইসলাম, শাহজাহান কবির প্যারিস, আওয়ামীলীগ নেতা ইমদাদুল ইসলাম,এস এম হাবিব, আকতার ফারুক, স ম জাহাঙ্গির, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান শেখ, শ্রমিক লীগের আহবায়ক মফিজুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, মনিরুজ্জামান মনি, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর শেখ, রবিউল ইসলাম বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক বিনয় কৃষ্ণ হালদার, আরিফুজ্জামান লিটন,

সরদার মিজানুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান কামাল হোসেন বুলবুল, ইউপি চেয়ারম‍্যান মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামান মিজান, ফরিদ শেখ,মনির মোল্লা,

তাহিদ মোল্লা, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রুহুল আমিন রবি, সাধারণ সম্পাদক ও রাজীব দাস, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক আশিকুজ্জামান তানভীর,

ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা মামুন শেখ, নাজির হোসেন, আসাবুর রহমান, ফ ম আইয়ুব আলী, কামাল হোসেন, হারুন শেখ, সিদ্দিক শেখ, আওরঙ্গজেব স্বর্ণ, খোকন শেখ, মিজানুর রহমান, উৎপল দত্ত, জাকির মোড়ল ইনতাজ মোল্লা,

যুবলীগের প্রদীপ বিশ্বাস,সাইদুর রহমান সগীর, কামরুজ্জামান সোহেল, আবুল কালাম আজাদ, রবিউল ইসলাম,শাহনেওয়াজ কবির টিংকু, রতন মন্ডল, খায়রুজ্জামান সজল,আ: করিম।

মাধুরী সরকার, স্বপ্না পাল,শিরিনা আকতার, ছাত্রলীগের হিমেল, রিয়াজ, কাজল, অঞ্জন, জুয়েল, সোহাগ,রুবেলসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ।