Amar Praner Bangladesh

আওয়ামীলীগ হলেই মুক্তিযোদ্ধা হয়না,আওয়ামীলীগ হলেই মুক্তিযোদ্ধা সন্তান হওয়া যায় না- মেয়র জগলুল

মোঃ আব্দুল শহীদ, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আয়ূব বখত জগলুল বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন সময়ে সাড়ে সাতকোাটি মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করতে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ যে ভাষন দিয়েছিলেন সেই ভাষনেই তিনি পুরো জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহনে সহায়তা করেছিলো। কাজেই বঙ্গবন্ধুর মতো নেতার জন্ম না হলে আজো এই দেশ স্বাধীন হতো কিনা সন্দেহ আছে। তিনি বলেন আওয়ামীলীগ হলেই মুক্তিযোদ্ধা হয়না,আওয়ামীলীগ হলেই মুক্তিযোদ্ধা সন্তান হওয়া যায় না । অসাম্প্রদািয়িকতার চেতনা নিয়ে বিভিন্ন ধর্মের ও শ্রেণীপেশার লোকজন সম্মুখ যুদ্ধে অংশ নিয়ে দীর্ঘ নয়মাস মরণপণ লড়াই করে যে দেশটি স্বাধীন করা হয়েছিল একটি স্বপ্ন ছিল প্রতিটি ধর্মের মানুষ স্ব স্ব অবস্থানে থেকে স্বাধীনভাবে নিজেদের ধর্মকর্ম নিবিঘের্œ পালন করবেন। কিন্তু স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪৬ বছর আমরা কি দেখলাম স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার আলবদরদের  সঙ্গে নিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার কিংবা ওদের মন্ত্রী বানিয়ে তাদের গাড়িতে ত্রিশলাখ শহীদের আত্ম বলিদান এবং দুলাখ মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতার লাল সূর্য্যের সেই পতাকা দেয়া হচ্ছে। কি লজ্জার কথা যারা আওয়ামীলীগে ঘাপটি থাকা  কিছু হাইব্রীড নেতা ও এমপিরা রাজাকারের পূত্রদের সাথে নিয়ে আওয়ামীলীগার বানিয়ে বিভিন্ন সভা সেমিনারে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নিয়ে কথা বলেন তখনই কষ্ট জাগে মনে। সুবিধাবাদী ঐ সমস্ত নেতারাই আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে কলংঙ্খিত করছেন ওদের কারণেই র্দূদিনের আওয়ামীলীগের ত্যাগী নেতারা,মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানরা আজ বিভিন্নভাবে রাজনীতির অধিকার এবং সরকারের বিভিন্ সুযোগ ুসবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এখন সময় এসেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার উন্নয়নের দ্বারাকে সমুন্নত রেখে এবং তা জনগনের কাছে পৌছে দিতে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের ভ’মিকা রাখার আহবান জানান। তিনি আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে (সুনামগঞ্জ-৪ ) আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকার মাঝি হয়ে নির্বাচন করতে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা চাপ প্রয়োগ করেছেন বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন এবং  ৬ডিসেম্বর সুনামগঞ্জ হানাদার মুুক্ত দিবস পালনে সকলকে অংশগ্রহন করার আহবান জানান ।
তিনি বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন আমাদের অঙ্গীকার এই শ্লোগান নিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষন ইউনেস্কো কর্তৃক মেমরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিষ্টারে অর্ন্তভুক্তির মাধ্যমে বিশ^ প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি লাভ করায় এই অসামান্য অর্জনকে আগামী ২৫ নভেম্বর উদযাপন উপলক্ষে ও ৬ই ডিসেম্বর সুনামগঞ্জ হানাদারমুক্ত দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড সুনামগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে শহরের মুক্তিযোদ্ধা হলরুমে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে  এসব কথা বলেন।
জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের আহবায়ক মোঃ আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের যুগ্ম আহবায়ক গোলাম আরিফ ও সদস্য সচিব নোমানুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায়  সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আলহাজ¦ আয়ূব বখত জগলুল। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ সাজিদুর রহমান সাজিদ,পৌর কাউন্সিলর চঞ্চল কুমার লৌহ,পৌর কাউন্সিলর ফয়জুন নুর,জেলা সন্তান কমান্ডের যুগ্ম আহবায়ক নুর হোসেন,শামীম আহমদ,সদস্য মাছুম,সাজু,বিশ^ম্ভরপুর উপজেলা সন্তান কমান্ডের সভাপতি মামুনুর রশিদ,সাধারন সম্পাদক নুর হোসেন,জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের সভাপতি পারভেজ আহমদ,সুরমা ইউপির জুয়েল আহমদ,দক্ষিণ বাদাঘাট এর কামাল আহমদ,সলুকাবাদ ইউপির আব্দুল হেলিম প্রমুখ।