Amar Praner Bangladesh

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে পদ্মাসেতু করেছে আর বিএনপি কি করেছে?

আক্তারুজ্জামান, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামীলীগকে বাঁচাতে হবে, মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে আওয়ামীলীগকে বাঁচাতে হবে। আন্দোলনে যারা পরাজিত নির্বাচনে তারা জয়ী হতে পারে না। বারবার দরকার শেখ হাসিনার সরকার, আগামী নির্বাচনে আবারও নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা নারীদের জন্য সকল সুযোগ সুবিধা দিয়েছে। তাদের দেশের গুরুত্বপূর্ণ পদে বসিয়েছেন। তাই এবারের ভোটে নারীরা কেউ নৌকা ছাড়া ভোট দেবেনা বলে আমি মনে করি। ব্যাণার, পোষ্টার, সাইনবোর্ড, বিশাল বিশাল গেট তৈরী করে নমিনেশন পাওয়া যাবেনা। নেতাদের মনোনয়ন দেওয়া হবে সাধারণ মানুষের জরিপে। দল করবেন আর আওয়ামীলীগের সুনাম নষ্ট করবেন তা হবেনা। আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে পদ্মাসেতু করেছে আর বিএনপি কি করেছে ? খালেদা জিয়ার দুই সন্তান অনিয়ম দুর্নীতি করে দেশকে দূগন্ধ করেছে। বাহিরের কয়েকটি দেশে ৩ হাজার বিলিয়ন টাকা পাচার করেছে। যা সর্বশেষ সৌদি আরবে প্রমাণিত হয়েছে। জিয়াউর রহমান মারা গেলে তার ভাঙ্গা সুটকেসে ছেড়া গেজ্ঞি ছাড়া আর কিছুই পাওয়া যায়নি। কোথা থেকে পেল এত টাকা। মঙ্গলবার সকালে সাতক্ষীরা শহিদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আয়োজিত বিশাল এক জনসভায়  প্রধান অতিথির বক্তব্যে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, যারা বলতো পদ্মাসেতু আলোর মুখ দেখবেনা। তারা দেখছেন পদ্মাসেতু দৃশ্যমান।  সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডের তালিকা তুলে ধরে আ’লীগ সরকারের আমলে সাতক্ষীরায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড হয়েছে বলে জানান।’
জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মুনসুর আহমেদ এর সভাপতিত্বে জনসভায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সদস্য এস.এম কামাল এমপি, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ.ফ.ম রুহুল হক এমপি, সাতক্ষীরা-০২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, সংসদ সদস্য এস.এম জগলুল হায়দার, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য মিসেস রিফাত আমিন, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান বাবু, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এস.এম শওকত হোসেন প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এড. এস.এম হায়দার, মফজুলার রহমান খোকন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফিরোজ কামাল শুভ্র, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু, জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সরদার মুজিব, প্রচার সম্পাদক শেখ নুরুল হক, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক শেখ হারুন উর রশিদ, উপ-দপ্তর সম্পাদক জে.এম ফাত্তাহ, আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম, কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ ফিরোজ আহমেদ স্বপন, তালা উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, দেবহাটা উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গণি, কালিগজ্ঞ উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ অহেদুজ্জামান, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু সায়ীদ, সাধারণ সম্পাদক মো. সাহাদাৎ হোসেন,  জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ডা. মুনছুর আহমেদ, অতিরিক্ত পিপি এড. আব্দুল লতিফ, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদিকা পৌর কাউন্সিলর জ্যোৎন্সা আরা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব লায়লা পারভীন সেঁজুতি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রেজাউল ইসলাম রেজা, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমানসহ আওয়ামীলীগ এর অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম