Amar Praner Bangladesh

ইউটিউবে প্রচার করতে কবরে ১০ ঘণ্টা, এরপর আদালতে

 

 

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

 

কবরের অভিজ্ঞতা কেমন তা জানতে এবং সেটি ইউটিউবে প্রচার করতে বাড়ির উঠানে কবর খুঁড়ে তার মধ্যে ১০ ঘণ্টা কাটিয়েছেন মিজানুর রহমান রনি (২৪)। ঘটনা জানাজানি হলে পুলিশ রনি ও তার ভাই মিলনকে (২৬) আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনা ঘটেছে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার আমরুল ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামে।

ওই দুই ভাই গ্রামের মোকছেদ আলীর ছেলে। রনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে চলতি বছর ডিপ্লোমা পাস করেছেন।

রনি কবরের অভিজ্ঞতা নিয়ে সেটি ইউটিউবে প্রচার করার জন্য বাড়ির উঠানে কবর তৈরি করে রোববার (২১ আগস্ট) রাত ১১টায় সেখানে প্রবেশ করেন। এ সময় সঙ্গে করে ক্যামেরা ও পানির বোতল নেন। কবরে যেন বাতাস প্রবেশ করে এ জন্য কবরের ভেতর থেকে বাইরে দুটি পাইপ স্থাপন করেন। একটি পাইপের মুখে ফ্যান লাগান এবং কবরের ভেতরে বৈদ্যুতিক বাল্ব জ্বালিয়ে রাখেন।

রাতে রনি কবরের ভেতরে ঢুকলে তার বড় ভাই মিলন মাটি চাপা দিয়ে কবরের উপরের অংশ ঢেকে দিয়ে বাইরের দৃশ্য ভিডিও করেন।

সোমবার (২২ আগস্ট) সকালে গ্রামের লোকজন ঘটনা জানার পর সেখানে ভিড় করেন। জনগণের তোপের মুখে সকাল ৯টার দিকে রনি কবর থেকে বের হয়ে আসেন। খবর পেয়ে সকাল ১০টার দিকে শাজাহানপুর থানা পুলিশ সেখানে গিয়ে রনি ও তার ভাই মিলনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, তারা নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করার জন্যই এটা করেছেন। তাদের অন্য অসৎ উদ্দেশ্য ছিল না। বিষয়টি তাদের পরিবারের সবাই জানতো। তারা ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করবে না জানিয়ে মুচলেকা দিয়েছে।

বিকেল ৪টায় তাদের দুই জনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।