Amar Praner Bangladesh

ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং ও মাদক প্রতিরোধে উত্তরায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে জনসচেতনতামূলক মতবিনিময় সভা

 

 

রবিউল আলম রাজু :

 

রাজধানীর উত্তরায় ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং ও মাদক প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের মধ্যে জনসচেতনতামূলক বৃদ্বির লক্ষে এক মতবিনিময় সভা আজ মঙ্গলবার দুপুরে নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল এন্ড কলেজের অডিটোরিয়ামে অনুষ্টিত হয়েছে।

নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো, শাহিনুর মিয়ার সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিমানবন্দর জোনের সহকারি পুলিশ কমিশনার (এসি) মো, সাইফুল ইসলাম সাইফ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উত্তরা পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো, জহিরুল ইসলাম ও ওসি (অপারেশন) মো, মুখলেচছুর রহমান প্রমুখ।

এসময় নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল এন্ড কলেজের সহকারি প্রধান শিক্ষিকা খালিদা পারভীন, দীপ্তি চক্রবর্তী, আরেফা বিল্লাহ, এসআই মো, ইউসুফসহ স্কুল ও কলেজের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ এবং শিক্ষার্থীরা উপস্হিত ছিলেন ।

মতবিনিময় সভায় মো, সাইফুল ইসলাম সাইফ বলেন,
আমাদের দেশের তরুন প্রজন্মের মেধাবী শিক্ষার্থীরা আগামি দিনের চালিকাশক্তি। তারাই একদিন বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

মেয়েদের দেখলে ছেলেদের ভাল লাগবে এটাই স্বাভাবিক উল্লেখ করে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সমাজে মোটা ও স্লিম এই দুই ধরনের মেয়ে ইভটিজিং বেশি শিকার হন। সমাজে ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং ও মাদক প্রতিরোধে বাংলাদেশ পুলিশ নিরলস ভাবে কাজ করে যাচেছন।

পুলিশের এ কর্মকর্তা বলেন, যে কোন মূল্যে এসব অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে পুলিশ বদ্ব পরিকর। কিশোর গ্যাং ও মাদকসেবন এবং বিক্রয়কারীদের বিরুদ্ধে কঠোর নজরধারীসহ আইনগত ব্যবস্হা গ্রহন করা হবে বলে হুশিয়ারি দেন পুলিশের এ কর্মকর্তা।

এদিকে, সভাপতির বক্তব্যে নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো, শাহিনুর মিয়া শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, উত্তরার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো নওয়াব হাবিবুল্লাহ স্কুল এন্ড কলেজ। এই শিক্ষা প্রতিষ্টানে দুই শতাধিক শিক্ষক ও কর্মচারী রয়েছে।

তিনি শিক্ষাপ্রতিষ্টানের সফলতা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাফল্য উল্লেখ করে বলেন, গত বছর এইচএসসিতে এই শিক্ষা প্রতিষ্টান থেকে ২৬৫ জন শিক্ষার্থী এ প্লাস পেয়েছে। এবছর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, আর্মিতে এবং ঢাকা মেডিক্যালে ৬৩ জন শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় চাঞ্জ পেয়েছেন। তোমাদেরকে মা-বাবার স্বপ্ন পূরণ করতে হবে এবং তাদের কথা শুনতে হবে।

অধ্যক্ষ মো, শাহিনুর মিয়া বলেন, শিক্ষকরা হলো মানুষ গড়ার কারিগর। পৃথিবীতে যে জাতি যত বেশি শিক্ষিত, সে জাতি তত বেশি উন্নত। তাই দেশ ও জাতি উন্নয়নে শিক্ষার কোন বিকল্প নেই।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ওসি মো, জহিরুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, যে কোন মূল্যে ইভটিজিং বন্ধ করতে হবে। কিশোর গ্যাংয়ের সাথে কেউ জড়িত থাকলে কাউকে বিন্দু মাত্র ছাড় দেয়া হবে না। আর ভয়ন্কর দিক হল মাদক। মাদক দেশ, সমাজ, জাতি ও পরিবারকে ধ্বংস করে দেয়। এসব থেকে শিক্ষার্থীদের দূরে থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা কিশোর গ্যাং প্রতিরোধে স্কুল ও কলেজের ইউনিফর্ম পরিধান করে কেউ সিগারেট ও অহেতুক আড্ডাবাজির উপর আমরা করছি। যেসব ছাত্ররা উশৃঙ্খল করার চেষ্টা করবে তাদেরকে পুলিশ আটক করে আইনের আওতায় নিয়ে আসবে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।