Amar Praner Bangladesh

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেলিনা জাহান লিটা’কে এমপি হিসেবে চান এলাকার গণমানুষ

এ.এইচ.লিটন, পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি ঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার রাজনৈতিক পরিবারের কৃতি সন্তান সেলিনা জাহান লিটাকে ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি হিসাবে চান এলাকার গণমানুষ। এলাকায় উন্নয়নে সাফল্য অর্জন করে ব্যাপক সারা জাগিয়েছে সেলিনা জাহান লিটা। জানাযায়, ঠাকুরগাঁও-৩ সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য ও রাণীশংকৈল উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলী আকবর এর সুযোগ্য কন্যা সংরক্ষিত ৩০১ আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটা। প্রকাশ তার পিতা মরহুম আলী আকবর ১৯৭৩ সালে জাতীয় সংসদ সদস্য পদে নির্বাচিত হন এবং চার পুত্র ও চার কন্যা এক স্ত্রী রেখে ১৯৯৯ সালে মৃত্যুবরণ করেন। তিনার জীবদ্দশায় প্রথম কন্যা সন্তান সেলিনা জাহান লিটা লেখাপড়া আর ক্রীড়া ও সাংস্কৃতির মধ্যে দিয়ে বিকশিত হন। ১৯৯০ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা বিভাগে অধ্যায়নরত থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্রলীগের রাজনীতিতে তুখোর ভাবে জড়িয়ে পড়েন। অদম্য শক্তিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী নিয়ে কলেজে অধ্যাপনায় যোগ দেন। সু-পরিচালনায় আওয়ামীলীগ রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে যোগ দেন তিনি। ১৯৮৬ সালে ছাত্রলীগ, ১৯৯৪ সালে রাণীশংকৈল উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগ প্রতিষ্ঠা করে রাজনৈতিক পথ সুগম করেন। ২০০৯ ও ২০১৪ সালে দুইবার গণমানুষের সমর্থনে রাণীশংকৈল উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হন। ঠাকুরগাঁও-৩ (পীরগঞ্জ-রাণীশংকৈল) আসনে একাধিক বার মনোনয়ন না পেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সু-দৃষ্টি ও সু-বিবেচনায় ২০১৪ সালে ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড় মহিলা-৩০১ সংরক্ষিত আসনে জাতীয় সংসদ সদস্য মনোনীত হন। অফুরন্ত প্রাণশক্তি নিয়ে দুর্বার গতিতে দু জেলায় সু-সংগঠিত করায় জেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সফল কাউন্সিল বাস্তবায়ন করে রাণীশংকৈল-পীরগঞ্জ সহ দুই জেলায় (ঠাকুরগাঁও-পঞ্চগড়) সকল অঙ্গসংগঠনকে সু-সংগঠিত ও বেগবান করে সক্রীয় ভূমিকা রেখেছেন। কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে ইতিমধ্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন, আইপিইউ সম্মেলন, সংসদে সক্রিয় উপস্থিতি, গতিময় অংশগ্রহণে সংরক্ষিত এমপি এলাকার উন্নয়নে ব্যাপক সারা জাগিয়েছে। রাণীশংকৈল ও পীরগঞ্জে দুটি মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ, রাস্তা পাকা করণ, পীরগঞ্জ রাণীশংকৈলের প্রধান সড়ক প্রশস্থ করণ (প্রক্রিয়াধীন), রাণীশংকৈলের ফায়ার সার্ভিস স্থাপন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবণ নিমার্ণ, মসজিদ, মন্দির, উপাসনালয় নির্মাণ উন্নয়নের ছোয়া অবাহত। রাণীশংকৈলে ২০১৩ সালে “আলী আকবর মেমোরিয়াল অটিস্টিক প্রতিবন্ধী স্কুল” প্রতিষ্ঠা করেছেন। এলাকার প্রতিবন্ধি শিশু ও তাদের অভিভাবকেরা পেয়েছেন আলোর দিশা। যুব সমাজকে মাদক থেকে ফেরানোর লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠা করেছেন “আলী আকবর এমপি ক্রীড়া একাডেমী”। সেখানে শতাধিক যুবক তরুণ ফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল, ব্যাটমিন্টন খেলাধুলা করে বেশকয়েকটি টুর্নামেন্ট থেকে চ্যাম্পিয়ন এবং রানারআপ পুরস্কার নিয়ে এসেছে। পাশাপাশি জঙ্গী, সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং প্রতিরোধ ও স্যানিটেশন নিশ্চিতকরণেও ব্যাপক ভাবে কাজ করছেন তিনি। কৃতিত্বের স্বীকৃতি হিসেবে ২০১৪ সালে শ্রেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান পুরস্কার, বিভাগীয় শ্রেষ্ঠ জয়ীতা পুরস্কার, শেরে বাংলা এ.কে ফজলুল হক স্বর্ণপদক, ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ অ্যাওয়ার্ড, ডেমোক্রেসি চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সম্মাননা পেয়েছেন। এছাড়া আলঝেইমার নাম ব্যাধিতে আক্রান্ত রোগীদের সেবার লক্ষে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য তিনাকে যুক্তরাজ্যের “আলঝেইমার ডিজিজ ইন্টারন্যাশনাল” সদস্য নির্বাচিত করেছেন। তিনি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ, মানুষের সমস্যা সংকটে পাশে দাঁড়ানো, এবং সামাজিক সহ রাজনৈতিক দায়িত্ব পালনে একজন সফল মা হিসেবে খ্যাতি পেয়েছেন। এসব সেবায় নিয়োজিত থেকে তার একমাত্র কণ্যা তাহসীন জাহান তীর্ণা এমবিবিএস কোর্সে লেখাপড়া করিয়ে তাকে আদর্শ ডাক্তার পদে নিযুক্ত করে এবং একমাত্র ছেলে তীক্ষণ’কে ঢাকায় রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজে ভর্তি করিয়েছেন। একান্ত সাক্ষাতকারে এ প্রতিবেদকে সেলিনা জাহান লিটা এমপি বলেন একজন আদর্শ সৎ রাজনীতিবিদ হিসেবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল দেশ গড়ার লক্ষ্যে গণমানুষের সাথে কাজ করে আমি আদর্শিক রাজনীতি ও সেবা অবাহত রেখেছি। রাজনীতিতে একটা ইতিবাচক পরিবর্তন ও এলাকার কাঙ্খিত উন্নয়নে দল এবং গণমানুষকে নিয়ে এগিয়ে যাবো। প্রতিহিংসার-বিভেদের রাজনীতি নয়, অহেতুক হয়রানি, নিপিড়ন, নির্যাতন নয় সকলকেই ঐক্যবদ্ধ করে উন্নয়নের কাজ করছি। এদিকে ঠাকুরগাঁও-৩ রাণীশংকৈল-পীরগঞ্জের গণমানুষ আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেখতে চান সেলিনা জাহান লিটা এমপিকে।