Amar Praner Bangladesh

এখন আর ক্রন্দন নয়, জেগে উঠতে হবে

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এখন আর ক্রন্দন নয়, জেগে উঠতে হবে। এই ভয়াবহ কর্তৃত্ববাদী, ফ্যাসিবাদী সরকারের জুলুম-নির্যাতন থেকে জাতিকে মুক্ত করতে হবে, গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করতে হবে, গণতন্ত্রের মাতা বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ভোলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমের জানাজায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘পিতার কাঁধে সন্তানের লাশের চেয়ে কষ্ট আর নেই। আজ নতুন নয়, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর একদলীয় শাসন পোক্ত করার জন্য গত ১৫ বছরে বিএনপির ৬০০ নেতাকর্মীকে গুম করেছে। ৩৫ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে।’

বক্তব্যের শেষ প্রান্তে এসে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ৫ থেকে ৭ আগস্ট সারাদেশে শোক পালনের অংশ হিসেবে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা, ৬ আগস্ট ছাত্রদলের, ৭ আগস্ট কৃষক দলের, ৮ আগস্ট যুবদল এবং ১০ আগস্ট জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের উদ্যোগে ঢাকায় সমাবেশ।

এসময় আরও বক্তব্য দেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, এনপিপির ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, এলডিপির ড. রেদোয়ান আহমেদ, ন্যাপ ভাসানীর অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, এলডিপির শাহাদাত হোসেন সেলিম, জাতীয় দলের সৈয়দ এহসানুল হুদা, এনডিপির আবু তাহের প্রমুখ।

জানাজায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমির খসরু মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, খাইরুল কবির খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, যুবদল সভাপতি সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকু, যুবদল নেতা এস এম জাহাঙ্গীর, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল প্রমুখ।