Amar Praner Bangladesh

এয়ারপোর্ট রেলষ্টেশনে আরএনবি সদস্যদের দৌঁরাত্ম্যে বেহাল অবস্থা যাত্রীদের

 

সাখাওয়াত হোসেন সাগর :

 

এয়ারপোর্ট রেল ষ্টেশন একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। একদিকে আন্তর্জাতিক শাহজালাল বিমানবন্দর অন্যদিকে হাজী ক্যাম্প এবং বৃহত্তর উত্তরা মিলে এই ষ্টেশনের গুরুত্ব বেড়ে গেছে। এখানে নিরাপত্তার জন্য আছে বাংলাদেশ রেলওয়ে পুলিশ সহ বাংলাদেশ পুলিশের ফাঁড়ি এবং রয়েছে আরএনবি সদস্যরা। এরা যাত্রীদের নিরাপত্তার পাশাপাশি নিজেরা অবৈধভাবে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার নিমিত্তে কোন না কোন অপরাধের সাথে জড়িয়ে যাচ্ছে। আর এই কাজের সাথে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে আছে আরএনবি সদস্যরা।

এরকম একটি ভিডিও ফুটেজ উঠে এসেছে প্রাণের বাংলাদেশ পত্রিকার প্রতিবেদকের ক্যামেরায়। সেখানে দেখা যায়, একজন আরএনবি সদস্য যার নাম শরীফ, তিনি যাত্রীদের নিকট থেকে মাথা পিছু ৫০ টাকা করে নিয়ে এয়ারপোর্ট থেকে কমলাপুর ষ্টেশন পর্যন্ত এই টাকা নিচ্ছেন বলে জানা যায়। খোজ নিয়ে জানা যায়, এয়ারপোর্ট প্লাটফর্মে এয়ারপোর্ট থেকে কমলাপুর যাওয়ার জন্য রয়েছে টিকেট। জনগণকে টিকিটের বিষয়ে উদ্ভুদ্ধ না করে এরা নিজেরাই অবৈধভাবে টাকা নিয়ে জনগণকে বিপদের মধ্যে ফেলে ট্রেনে তুলে দিচ্ছে। টিকিট বিহীন যাত্রীরা ট্রেনে উঠার পর গুনতে হচ্ছে আবার জরিমানা।

তাছাড়া এয়ারপোর্টে কর্তব্যরত আরএনবি সদস্য সহ অন্যান্য বাহিনীর সদস্যরা হকারদের নিকট থেকে চাঁদাবাজি করা সহ অনেক অপরাধের সাথে জড়িত আছে মর্মে বিগত দিনে এসব বিষয় নিয়ে একাধিক পত্রিকায় অনেক সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। সংশ্লিষ্ট দপ্তর গুলো কিছু কিছু ব্যবস্থা নিলেও দূর্নীতিগ্রস্থ সরকারী চাকুরীজীবি এই লোক গুলো আইনের ফাঁক ফোকড় দিয়ে বেরিয়ে আবার এয়ারপোর্ট রেলষ্টেশনের মতো গুরুত্বপূর্ণ স্থানে চাকুরীতে বহাল থাকছে। সব মিলিয়ে এসব আরএনবি সদস্যদের জন্য বেহাল অবস্থা যাত্রীদের।