Amar Praner Bangladesh

কপোতাক্ষ নদের উপর ঝুঁকিপুর্ণ বাঁশের সাঁকো

এম. আব্দুল করিম, কেশবপুর (যশোর) ঃ
যশোরের কেশবপুরে মহাকবি মাইকেল মধুসুদন দত্তের জন্মভমি সাগরদাঁড়ীতে কপোতাক্ষ নদের উপর ঝুঁকিপূর্ন বাঁশের সাঁকো দু-পাড়ের সাধারন মানুষ সহ ছাত্র-ছাত্রীর  এক আতঙ্কের নাম। জীবিকার তাগিদে এলাকার লোকজন ও কোমলমতি শিক্ষার্থীদের জীবনের ঝুকি নিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করতে হয় বাঁশের এই সাঁকোর উপর দিয়ে। এই সাঁকোর উপর দিযে পার্শ্ববর্তী উপজেলা তালা,কলারোয়ার ছাত্র ছ্ত্রাীসহ হাজার হাজার নারী পুরূষ যাতায়াত করে থাকেন। স্থানীয়দের অভিযোগ ভোটের সময় কপোতাক্ষ নদের উপর দিয়ে সেতু করার স্বপ্ন দেখিয়ে নির্বাচনী বৈতরনী পাড় হন। স্বাধীনতার এত বছরে মধুকবির স্বপ্নের কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু নির্মানের কোন উদ্যোগ না নেওয়ায় এলাকাবাসীর ভিরত তীব্র ক্ষোভ দানা বেঁধেছে। গুরুত্বপূর্ন এই সেতুটি নির্মিত হলে কেশবপুর, তালা,কলারোয়া,সাতক্ষীরার লোকজনের জীবনযাত্রা পাল্টে যাবে। মহাকবি মাইকেল মধুসুদন দত্তের জন্মভুমিতে অবস্থিত পর্যটন কেন্দ্র, মধুপল্লী¬,ডাক বাংলো,কলেজ, প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয়,স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র, সোনালী ব্যাংক,গ্রামীন ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংকসহ অসংখ্য সরকারি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এস,এস,সি, পরীক্ষা কেন্দ্রও রয়েছে। মধুকবির জন্ম বার্ষিকীতে প্রতি বছর ২৫শে জানুয়ারী সপ্তাহব্যাপী সরকারীভাবে উদ্যাপিত হয।ঐ সময় বাঁশের সাঁকো দিয়ে হাজার হাজার লোকজন পারা পার হয় জাতীয় মেলা উপভোগ করার জন্য। মেলা উপভোগ করতে এসে র্দর্ভোগে পড়েন সাধারন মানুষ। সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায় সাঁগরদাড়ী কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু নির্মান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন। কপোতাক্ষ নদের উপর সেতু না থাকায় মানুষ তাদের উৎপাদিত কৃষিপন্য নিয়ে বাঁশের সাঁকোর উপর দিয়ে কারো কাঁদে বেগুনের খাচি,কারো মাথায় সবজি, কারোর কাঁধে ধান,পাট। স্থানীয় ইউপি মেম্বর আব্দুস সবুর জানান কপোতাক্ষের উপর সেতুটি র্নিমান হলে কেশবপুর,তালা, কলারোয়ার বিভিন্ন পেশার মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হতো না। এলাকাবাসি জানান তাদের স্বার্থে প্রতিবছর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এই বাঁশের সাঁকোটি সংস্কার করে থাকে। মধুকবির স্বপ্নের কপোতাক্ষ নদের উপর একটি সেতু তিনটি উপজেলার হাজার হাজার মানুষের প্রানের দাবী।