বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
চুরির ঘটনায় হয় না তদন্ত, ধরা পড়েনা চোর টাঙ্গাইলে অন্যের ভূমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের অভিযোগ! নড়াইল লোহাগড়া উপজেলা দুই সন্তানের জননীকে গলা কেটে হত্যা উত্তরার সুন্দরী মক্ষিরাণী তন্নি অনলাইনে চালাচ্ছে দেহ ব্যবসা মিরপুর এক নাম্বারের ফুটপাত থেকে কবিরের লাখ লাখ টাকা চাঁদাবাজি নাম ঠিকানা লিখতে পারেনা সাংবাদিকে দেশ সয়লাব গ্যাস ও বিদ্যুতের অতিরিক্ত দাম নিয়ে সংসারের হিসাব সমন্বয় করতে গলদঘর্ম দেশবাসী ভারত থেকে চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন পথে প্রবেশ করছে মাদক ৮০টি পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ করার প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন অর্থ ও ভূমি আত্মসাৎ এ সিদ্ধহস্থ চুয়াডাঙ্গার প্রতারক বাচ্চু মিয়া নির্লজ্জ ও বেপরোয়া

কুষ্টিয়ার মহাসড়ক গুলো চলাচলের অযোগ্য, মেরামতের উদ্দ্যোগ নেই

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
  • ৩২ Time View

ইসমাইল হোসেন বাবু, ভেড়ামারা, কুষ্টিয়া:  চরম অব্যাবস্থাপনা ও সড়ক ও জনপদ বিভাগের অবহেলা অবজ্ঞায় কুষ্টিয়া জেলার সকল মহাসড়ক গুলো খানা খন্দে’র কারনে ব্যবহারের একেবারেই অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ-ঈশ্বরদী মহাসড়কে ৫০ কিঃমিঃ ও কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী-ঢাকা সড়কের ২২ কিঃমিঃ খানা খন্দে যানবাহন চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কের এহেন নাজুক অবস্থার উন্নতি কল্পে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মীরা নিষ্ফল ইট পাথারের ঝালাই এর কাজ করে চলেছে। শ্রাবণের কয়েকদিনের অঝর ধারায় কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ-ঈশ্বরদী মহাসড়কের প্রায় ৫০কিঃমিঃ ও কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী-ঢাকা সড়কের ২২কিঃমিঃ রাস্তা খানাখন্দে ভরে গেছে। প্রত্যহ দিনে প্রায় ১২ হাজার যানবাহন ঝুকি নিয়ে এ সকল সড়ক দিয়ে যাতায়াত করছে। এদিকে সড়কটি মেরামতের নামে গত ২বছরে বিপুল পরিমাণ অর্থে লুটপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
কুষ্টিয়া বাস মালিক সমিতি ও সড়ক ও জনপদ বিভাগের তথ্য মোতাবেক দেশের উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের ৩২টি জেলার যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যমটি হলো কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ-ঈশ্বরদী, কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী-ঢাকা সড়ক। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে এই মহা সড়কে শুধু বড় বড় খানা খন্দ ও গর্তে ভরে গেছে। বিশেষ করে কুষ্টিয়া শহরের বারখাদা ত্রিমোহনী থেকে শুরু করে ভেড়ামারা বারমাইল পর্যন্ত এবং শহরের মজমপুর গেট থেকে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত, চৌড়হাস থেকে কুষ্টিয়ার খোকসা সীমান্ত (শিয়ালডাঙ্গী) পর্যন্ত খানাখন্দে ভরা রাস্তা গুলো। এসকল এলাকার সড়কের বেশির ভাগ জায়গায় কার্পেটিং উঠে গেছে। একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে থাকে। তার উপরে পদ্মা সেতু নির্মাণের সকল সরঞ্জামাদি ও পাথর এ রাস্তাতে বহন করায় একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছে। এদিকে সড়ক বিভাগের সংশ্লিষ্ট সূত্রে থেকে জানা গেছে, গত ২ বছরে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ-ঈশ্বরদী সড়কে সংস্কারের নামে ২৫ কোটি টাকা ব্যায় হয়েছে। সর্বশেষ গত কয়েক মাস আগেও এটির সংস্কার কাজ করা হয়। এছাড়াও আপদ কালীন অবস্থায় জরুরী মেরামত কাজ লেগেই আছে। একদিকে যেমন সরকারী টাকার গচ্ছা যাচ্ছে অপরদিকে সড়ক মেরামতের নামে হরিলুট হচ্ছে সরকারী টাকা। সাধারনের মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌছে গেছে। ঝুকি নিয়ে চলছে গাড়ী। মূল্যবান জীবন ক্ষয় হচ্ছে প্রায়শ।
এসকল বিষয়ে কথা বলতে গেলে সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম জানান, বৃষ্টির কারণে ও ভারী যানবাহন রাস্তা দিয়ে চলাচল করায় কুষ্টিয়া মহা সড়কের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আপ্রাণ চেষ্টা করেও মহা সড়ক গুলো সংস্কার করে ঠিক রাখা যাচ্ছে না। তাই ভারী যান বাহন চলাচলের নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে কিছুটা হলেও রাস্তাটি রক্ষা পেত।

বৃষ্টির তীব্রতা কমলে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মীরা এভাবেই ইটপাথর দিয়ে মহা সড়কের ঝালাই কাজে ব্যস্ত রয়েছে। একদিকে যেমন সরকারী টাকার গচ্ছা, অপর দিকে রাস্তার বেহাল দশায় উক্ত মহা সড়ক দিয়ে যাতায়ত করে মূল্যবান যানবাহন দূর্ঘটনা কবলিত হয়ে যান মালের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। বিষয়টি আমলে নিয়ে দ্রুত কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ-ঈশ্বরদী ও কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী-ঢাকা সড়ক সংস্কার করতে সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে ভূক্তভোগী জনগণ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

এই সাইটের কোন লেখা কপি পেস্ট করা আইনত দন্ডনীয়