Amar Praner Bangladesh

কুষ্টিয়ায় স্ত্রীসহ ওসির বিরুদ্ধে দুদকের সাড়ে ৩ কোটি টাকার মামলা

 

ষ্টাফ রিপোর্টার :

দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকার সম্পদ অর্জনের দায়ে স্ত্রীসহ এক পুলিশ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেলে কুষ্টিয়ার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক তহিদুল ইসলামের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়ার উপ-সহকারী পরিচালক নাছরুল্লাহ হোসাইন।

মামলায় অভিযুক্ত হলেন- গাংনী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবং বর্তমানে রাঙামাটি জেলার পুলিশ বিশেষ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে (পিএসটিএস) কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক হরেন্দ্রনাথ সরকার (৫৩) এবং তার স্ত্রী কৃষ্ণা রাণী অধিকারী। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০০৬ সালের ০৯ জানুয়ারি থেকে ২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল সময়কালের মধ্যে বিভিন্ন সময় পুলিশ পরিদর্শক হরেন্দ্রনাথ সরকার আইন বহির্ভূত ও অবৈধ পন্থায় ২ কোটি ৮৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৮৪ টাকা এবং তার স্ত্রী কৃষ্ণা রাণী অধিকারী ৩২ লাখ ৮০ হাজার ৭৪ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করেছেন। দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়ার তদন্তকারী দলের তদন্তে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া যায়।

এতে দুদক আইনের ২৬ (২), ২৭ (১) ও মানি লন্ডারিং আইনের ৪ (২ ও ৩) ধারায় সংঘটিত অপরাধ আমলযোগ্য মনে করায় দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় কুষ্টিয়ার উপ-সহকারী পরিচালক নাছরুল্লাহ হোসাইন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন বলে নিশ্চিত করেন দুদক কুষ্টিয়ার লিগ্যাল কর্মকর্তা বাসেদ আলী।

এ বিষয়ে গাংনী থানার সাবেক ওসি এবং বর্তমানে রাঙামাটির পিএসটিএসে কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক হরেন্দ্রনাথ সরকারের ফোনে দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশকে বলেন, ‘হ্যাঁ এর আগে দুদক একটা তদন্ত করেছিলেন। তবে মামলার বিষয়টি আমার জানা নেই। দয়া করে বিষয়টি ওইসব নিউজ টিউজে আইনেন না। উনারা তো আমার ফাইলপত্রও ঠিকভাবে দেখেনি। আমাকে আত্মপক্ষ সমর্থনেরও সুযোগ দেননি। উনারা আন্দাজে কীভাবে কী করলেন আমি বুঝলাম না।