সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মমতাজুল হক সভাপতি ও অক্ষয় কুমার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত চুয়াডাঙ্গায় ভালাইপুরের শাজান সজীবের বিরুদ্ধে জমি দখলের পায়তারা নড়াইলের মধুমতী নদীতে নিখোঁজ হওয়ার ৩দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার দেশ ও জাতির স্বার্থে ঐক্যের বিকল্প নেই : হাসান সরকার সাতক্ষীরায় অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা টাঙ্গাইলে সেচের মূল্য টাকায় পরিশোধের দাবিতে কৃষকদের মানববন্ধন সৌদি আরবে এক সপ্তাহে বাংলাদেশিসহ ১৬,৩০১ জন অবৈধ প্রবাসী গ্রেফতার প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় লাইনম্যান বেপরোয়া প্রশাসনের নিরব ভূমিকা তুরাগে ওড়না পেঁচিয়ে এক গার্মেন্টসকর্মীর আত্মহত্যা পেরুতে যাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনায় নিহত ২৪

ক্লিনিক থেকে পাঠানো হলো নবজাতকের প্যাকেট বন্দি লাশ, বাড়িতে এসে দেখা গেলো শিশুর দেহে প্রাণের স্পন্দন

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৭ Time View

 

 

 

হাসনাত রাব্বু, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি :

 

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার একটি ক্লিনিকে সিজারিয়ান অপারেশনের পর সদ্য ভুমিষ্ট নবজাতকের নাক-মুখসহ সারা দেহ কাপড়াচ্ছাদিত করে অতঃপর ওষুধের ঢোপ/প্যাকেটে ভরে প্রসূতির বাড়িতে পাঠানোর পর দেখা গেল নবজাতক শিশুটি নড়াচড়া করছে এবং প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট অনুভব করছে। মুমূর্ষু নবজাতকের স্বজনেরা তৎক্ষনাৎ তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়ার সময় পথিমধ্যে শিশুটির মৃত্যু ঘটে যায়। এমনটাই অভিযোগ দৌলতপুর উপজেলার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত বিন্দি গ্রামের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী গ্রামবাসীর। জানা গেছে, গত শনিবার উক্ত গ্রামের রানা আহমেদ ওরফে রাঙার অন্তঃসত্তা স্ত্রী মোছাঃ জাহেরা খাতুনের প্রসব বেদনা উঠলে গতকালই তাকে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়।

রোববার সকালে হাসপাতাল সংলগ্ন একটি ক্লিনিকে ভর্তি হয়ে সকাল ০৯.০০ টার দিকে ডাঃ সফর আলীর তত্বাবধানে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে কন্যা শিশু ভুুমিষ্ট হয়। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ এবং চিকিৎসকেরা বলছেন বাচ্চা পেটের ভিতরেই মৃত ছিল। এদিকে অপারেশনের পূর্বে তাৎক্ষণিক কোন আল্ট্রাসনোগ্রাম করা হয় নাই। অপারেশনে সপ্তাহকাল পূর্বের রিপোর্টের উপর ভিত্তি করেই অস্ত্রচপচার করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন খোদ ক্লিনিক মালিক। অভিযোগ উঠেছে নবজাতক সন্তানকে প্যাকেটে মুড়িয়ে অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ক্লিনিকের লোকজন শিশুটিকে পুঁতে ফেলার পরামর্শ দেন। বাড়িতে আসার পর কাপড় খুলে ধৌত করার পূর্বে দেখা যায় শিশুটি বেঁচে আছে এবং কান্না করছে। নবজাতককে এলাকাবাসী কর্তৃক রিফায়েতপুর ইউনিয়নের বাজারের পল্লী চিকিৎসক টুটুল আলীর কাছে আনা হলে সে দ্রুুত দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যেতে বললে সেখানে নিয়ে যাওয়ার সময় বাচ্চাটির মৃত্যু ঘটে যায়।

মৃত নবজাতকের মা জাহেরা খাতুন এখনো অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যু ঘটেছে মর্মে জেলার সিভিল সার্জন বরাবরে অভিযোগ দাখিলের প্রস্তুতি চলছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, নবজাতকটি প্রসূতির পেটের মধ্যেই মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল।

এব্যাপারে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মজিবুর রহমান এর সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আলহাজ্ব নামক একটি ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর খবর আমাকে অবহিত করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তারা সিভিল সার্জন বরাবরে অভিযোগ দেবে বলে জানতে পেরেছি।

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category