Amar Praner Bangladesh

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে কিশোরীকে ইউপি সদস্যের মারধর

 

 

সাহাজুদ্দিন সরকার :

 

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার শিমুলিয়া এলাকার ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীর এক কিশোরীকে (১৪) “খারাপ কাজের” অপবাদ দিয়ে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এরপর ওই কিশোরীকে এক ছেলের সঙ্গে বিয়ে পড়িয়ে দেওয়া হয়। এতে আরও বিপাকে পড়েছে কিশোরীর পরিবারটি।

পেটানোর একটি ভিডিও ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম কালিয়াকৈর উপজেলার ফুলবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

ওই কিশোরীর মা বলেন, “২৬ মে বিকেলে প্রতিবেশী এক ছোট ভাই আমাদের বাড়িতে আসে। তখন বাড়িতে আমার শাশুড়ি এবং মেয়ে ছিল। আমার মেয়ে এবং ওই কিশোর ছেলে সম্পর্কে মামা-ভাগ্নে। এমন সময় অভিযুক্ত স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ এলাকার কয়েকজন আমাদের বাড়িতে আসে। তারা ‘খারাপ সম্পর্ক আছে’ বলে আমার মেয়েকে মারতে শুরু করে। এক পর্যায়ে চাপ প্রয়োগ করে ছেলে-মেয়ের মধ্যে বিয়ে পড়িয়ে দেন। পরে আদালতে রেজিস্ট্রি করা হবে বলে ঘোষণা দেন ওই ইউপি সদস্য।”

তিনি আরও বলেন, “বিয়েতে কেউ রাজি ছিল না। জাহাঙ্গীর আলম উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে এ ঘটনা সাজিয়েছে।