গাজীপুরের রুপকার-একজন আওয়ামীলীগ মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

আওলাদ হোসেনঃ

ধৈর্য্য আর সাহসের উজ্জল প্রতীক, সাচ্চা আওয়ামীলীগ পরিকল্পিত সংগঠক, শেকড় থেকে শিখড়ে মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। গাজীপুর বাসীর আস্থাভাজন-আধুনিক রুপকার হিসাবে ইতিমধ্যে সর্বজন স্বীকৃত প্রশংসিত ব্যক্তি হিসেবে নিজেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক হিসেবে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছে।

 

বৃহৎ পরিকল্পিত আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সোপানে গাজীপুর জেলাকে মেগা সিটি হিসেবে এগিয়ে নেয়ার প্রচেষ্ঠায় কাজের গতিতে গাজীপুর বাসী কিছুটা ধৈর্য্য হারা হলেও ফল সুমিষ্ট হবে বলে ধৈর্য্য ধারণ করতে আজ্ঞাবহ হতে বলেছেন মেয়র আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম।গাজীপুর জেলার আওয়ামীলীগের সকল অঙ্গ সংগঠনের অভিভাবক সূখ-দূ:খের কান্ডারী জাহাঙ্গীর আলম তৃনমূল থেকে রাজনীতি করে আজকে গাজীপুরকে একটি শক্তিশালী আওয়ামীলীগের ঘাটি তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। গত কয়েক দফা মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে নিয়ে লেখা সংবাদে ভাল-মন্দ অনেক কথাই উল্লেখ করেছ্ কথায় আছে কারো ভালো চাইলে শুধু তার প্রশংসার কথা লিখলেই হবে না তাকে উৎসাহ ব্যাঞ্জক শব্দ প্রনালী ভালবাসা অমৃত দিয়ে আঘাত করতে হয় যেন কাজের গতি বৃদ্ধি পায়। কারণ আমি একজন আওলাদ একজন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নাগরীক আমার একজন সফল ব্যক্তিত্ব মেয়র আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলমকে নিয়ে ভাবতে হয়।

 

বৃহত্তর গাজীপুর সহ সম্পূর্ণ প্রাণের বাংলাদেশ আমার হৃদয়ের স্পন্দন। গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের রাজনীতি আমার দৃষ্টিতে তার আর্বিভাব প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের সোপানে তার অগ্রনী ভূমিকা আগামী প্রজন্মের জন্য উজ্জল দিকপাল। এই মহান বীরপুরুষকে নিয়ে আমার লেখার অগ্রবানী-হুংকার সু-সংবাদের রুপক। তিনি একজন মানুষ একশত ভাগ কাজ তিনি একাই করতে পারবেন বিষয়টিতো এমন নয়। ভূল যেই করুক তৃনমূল থেকে হাইকমান্ড প্রধানমন্ত্রী থেকে রাষ্ট্রপতি সবার খবর প্রকাশিত হতে পারে বর্তমান সরকারের তথ্য প্রকাশের শতভাগ স্বাধীনতায়। আমার লেখার সুত্রপাতকে পাথেয় করে আমার প্রিয় সহকর্মী বৃন্দ সহ অনেকে ভয় পেয়ে গাজীপুর টঙ্গীর বেশ কিছু হাইব্রীড সাংবাদিক সহ মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের নিকটস্থ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের বোঝাবার চেষ্টা করেছেন। মেয়রের লেখা সাংবাদিক আওলাদ লিখেছে। আমরা কিছু জানি না। আমাদেরকে আবার কোন বিপদে ফেলবেন না। যা করার সাংবাদিক আওলাদকেই করেন। হ্যাঁ আমিও বলছি আমি লিখেছি। আমার লেখায় যদি গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীরের উন্নয়নের জোয়ারের গতি বৃদ্ধি পায়, আমার লেখায় যদি জাতির জনকের যোগ্য কণ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সোপানে মেয়র জাহাঙ্গীর আলম পাল তুলে দেয়। তাতে কোন শালার কি!

 

একজন মেয়র,একটি জাহাঙ্গীর আলম-একটি আওয়ামীলীগের গল্প। গাজীপুরবাসীর হৃদয়ের নেতা, র্দূসময়ের কান্ডারি মেয়র আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম। তিনি বুঝেন যারা শুধু তেল মারা কথা লিখে পকেট ভরতে চায় তারা কেমন মৌসুমি ফল আর পক্ষান্তরে যারা ভূল ধরিয়ে দেয় কাজের গতি বাড়াতে উৎসাহ দেয়, কাজের তাগাদা দেয়, সমাজের ভাল মন্দ তুলে ধরে তারাই সমাজের দর্পন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরের কুসুম বাগানে সুবিধাবাদী হাজারো হাইব্রিড নেতাকর্মী – সাংবাদিক সহ অনেক ভূতুম প্যাঁচার আগমন ঘটেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের জোয়ারে তার সততা আর সাহসের উজ্জল কিরনে এসব সুবিধাবাদীদের মসনদ ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যাবে। আগে সোনার বাংলা। পরে অন্য সব। সাধু সাবধান।