Amar Praner Bangladesh

গোপালগঞ্জে ভুল রেকর্ড ও মামলার রায়ে দিশেহারা ভূমি মালিক

 

 

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

 

গোপালগঞ্জে সদর উপজেলায় ভূল রেকর্ডের সূত্রধরে মামলা ও আদালতের রায় হওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে আবু নাইম মিন্টু নামের এক ভূমি মালিক। আবু নাইম মিন্টু গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বোড়াশী ইউনিয়নের বেন্নাবাড়ী গ্ৰামের মৃত ছরোয়ারজান শেখের ছেলে।

জানা গেছে আবু নাইম মিন্টু গত ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৯৬ সালে ফোরকান আহাম্মেদ খানের কাছ থেকে ৯৬ নং তেঘুরিয়া মৌজার এস এ ২৯৩ বিআর এস ২৮২ নং দাগের ১১৩ নং খতিয়ানের ৩০ শতাংশ নিচু ডোবা ভূমি ৪৮৭০ নং দলিল মূলে ক্রয় করে। পরে ওই নিচু যায়গায় বালু ও মাটি দিয়ে ভরাট করে উন্নয়ন করে ৫ তলা ফাউন্ডেশন দিয়ে তিন তলা পাকা বিল্ডিং নির্মান করেন। ভবনটিতে আবাসিক, সেবা মূলক ও বানিজ্যক ভাবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানেকে ভাড়া দেওয়াসহ নিজের পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছেন।

আবু নাইম মিন্টু, তার ভাই আবুহানিফ, মেয়ে সনিয়া সুলতানা মাছু সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, গত ৮ এপ্রিল ২০১৮ সালে সোনাকুর এলাকার একটি প্রভাবশালী, লাঠিয়াল ও ভূমিদস্যু প্রকৃতির ব্যক্তি সোহেল শিকদার, কুটু শিকদার, রেসিয়া বেগমসহ একটি জালিয়াতি চক্র গোপালগঞ্জ ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইবুনাল আদালতে ভিত্তিহীন, মনগড়া ও বানোয়াট একটি মামলা করেন। গোপালগঞ্জ ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক ইউসুফ হোসেন আমাদের দলিল, পর্চা, রেকর্ড সংশোধনের ডিগ্ৰী সহ অন্যান্য কাগজপত্র আমলে না নিয়ে বড় অংকের উৎকোচের বিনিময়ে ভূমিদস্যু ও প্রভাবশালীদের পক্ষে রায় দিয়েছে।

আমাদের এই জমির পূর্ববর্তী মালিকের পাশাপাশি তাদের পূর্বপুরুষদের নামে ভূলবসত এস এ রেকর্ড হয়। যা পরে আমরা জানতে পেরে রেকর্ড সংশোধনের জন্য আদালতের শরণাপন্ন হই এবং আদালত উক্ত এস এ রেকর্ড বাতিল করে আমাদের পক্ষে ডিগ্ৰী প্রদান করেন। প্রভাবশালী ওই পক্ষ আমাদের কাছ থেকে সুকৌশলে চাঁদা আদায় করার জন্য তৎকালীন সময়ের ওই ভূল রেকর্ডের সূত্র ধরে আমাদের দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকিসহ মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে।

আমরা অর্থনৈতিক ও প্রভাব প্রতিপত্তির দিক দিয়ে দুর্বল হওয়ায় ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। আমারা গোপালগঞ্জ ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইবুনাল আদালতের রায়ে বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব।

আবু নাইম মিন্টু আরো বলেন, আমি ব্যবসা করতাম, আমার জীবনের সমস্ত সঞ্চয় দিয়ে বুড়ো বয়সে এই জমিটুকু কিনেছি, বিভিন্ন ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে অনেক কষ্ট করে বিল্ডিং করেছি, এই জমি যদি আদালতের ভূল রায়ের কারনে প্রভাবশালীদের দখলে চলে জায় তাহলে আমার পরিবার নিয়ে রাস্তায় বসতে হবে।