Amar Praner Bangladesh

গোপালগন্জ নিজড়ায় মনিরুল ইসলাম বাসুর অত্যাচারে তার ভাইয়েরা ও প্রতিবেশীরা অতিষ্ঠ

 

 

নার্গিস আক্তার :

 

গোপালগঞ্জ নিজড়ায় মনিরুল ইসলাম বাসু সাবেক বর্ডার গার্ড এর সদস্য, তার বিরুদ্ধে তার আপন ভাইদের এবং প্রতিবেশীদেরকে অতিষ্ঠ করা এবং সেই সাথে অত্যাচারের অভিযোগ উঠেছে।

মনিরুল ইসলাম বাসুর ভাই মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, পিতা- মৃত নোয়াব আলী থান্দার গ্রাম নিজড়া, থান্দার পাড়া,  ডাকঘর উলপুর, থানা+জেলা- গোপালগঞ্জ।

তিনি দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশকে বলেন, আমি আমার বড় ভাই মনিরুল ইসলাম (বাসু)র অত‍্যাচারে বাড়িতে বসবাস করতে পারিনা প‍্রায় ১০-১২ বছর ধরে। আমার ঘরের ভিতরে রাতের বেলায় ছাগল বেধেঁ রাখে। ছাগলের গন্ধ এবং প্রস্রাবের উদ্ভট দুর্গন্ধে আমার পরিবার বছরজুড়ে অসুস্থ থাকে। দরজার সামনে আমার চাপ কলের আশে পাশে ময়লা আবর্জনা ফেলে দূর্গন্ধময় করে রেখেছে।

তার আচার-আচরণ খুবই খারাপ, শুধু আমাদের ভাইদের সাথে নয় আশেপাশের প্রতিবেশীদের সাথে তার দুর্ব্যবহার চরমে পৌঁছেছে।

আমাদেরকে এলাকা ছাড়া করার জন্য আমাদের ঘরের মধ্যে জোর করে ছাগল বেঁধে রাখে, ময়লা আবর্জনা ফেলে এবং আমাদেরকে কথায় কথায় অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মনিরুল ইসলাম বাসু তার চাকুরী জীবনে অনেকের সাথে দুর্ব্যবহার করেছে। গ্রামের কোন লোকের সাথেই তার ভাল সম্পর্ক নাই, সে নিজের পরিবারে আপন ভাইদের সাথে মিলেমিশে থাকতে পারে না, অন্যের সাথে সে কিভাবে থাকতে পারবে।

এ বিষয় নিয়ে গোপালগঞ্জ থানায় মনিরুল ইসলাম বাসুর ভাইয়েরা গোপালগঞ্জ সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। ডায়রী নং- ৫২০ এবং ৭১৪ । এ বিষয় নিয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় যোগাযোগ করে সাধারণ ডায়েরির বিষয়টি সত্য বলে জানা যায়।

তার ভাইয়েরা এবং আশেপাশের কিছু লোক নাম-না-জানাতে ইচ্ছুক স্থায়ী বাসিন্দারা জানান, মনিরুল ইসলাম এমন একজন লোক সম্পত্তির লোভে সে নিজের আপন ভাইদেরকেও জবাই করতে কুণ্ঠাবোধ করবে না। পরিস্থিতি এতটাই ঘোলাটে যে যেকোন মুহূর্তে ভাইদের মাঝে রক্তপাতের ঘটনা ঘটতে পারে, হতে পারে খুন খারাপি, বলে জানায় আশপাশের প্রতিবেশীরা।

মনিরুল ইসলাম বাসু এতটাই খারাপ সে নিজের আপন ভাতিজি ভাতিজা কাউকে চোখে দেখতে পারে না এবং সবার সাথে দুর্ব্যবহার করে বলে জানায় তার আপন ভাইয়েরা।

আত্ম অহমিকা এবং অহংকারের প্রচণ্ড প্রভাব দেখিয়ে হিংসাত্মক মনোভাব চরিতার্থ করে ইসলামিক মূল্যবোধকে গলাটিপে হত্যা করে হীনচরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়ে আপন রক্তের সম্পর্ক পরিত্যাগ করে অইসলামিক কাজ করে সম্পূর্ণ এলাকায় একটি অশুভ ছায়া ফেলেছে।