Amar Praner Bangladesh

গৌরনদীতে মা-বাবার সাথে অভিমান করে কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধিঃ

বরিশালের গৌরনদীতে কাওছার সরদার (২৪) নামের এক কলেজ ছাত্র গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। মা ও বাবার সাথে অভিমান করে বুধবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার বার্থী ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাসে চাম্বুল গাছের সাথে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে সে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে কলেজ ক্যাম্পাসের চাম্বুল গাছের সাথে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে। সে উপজেলার ব্রাহ্মনগঁও গ্রামের সিরাজ সরদারের ছেলে ও বরিশাল কলেজের অনার্সের ছাত্র।

 

গৌরনদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আঃ রব হাওলাদার জানান, কলেজ ছাত্র কাওছার সরদার মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে দীর্ঘদিন ধরে পাগলামি করে আসছিলো। তাই অভিভাবকরা ডাক্তারের ব্যবস্থাপত্রে ছেলের মানসিক রোগীর চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছিল। কারণে অকারণে প্রায়ই সে মা-বাবা ও প্রতিবেশীদের গালাগাল ও ধাওয়া করতো। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সে বাবাকে গালাগাল ও ধাওয়া করে বাড়ি থেকে বের হয়। খবর পেয়ে তার (আঃ রব) নেতৃত্বে থানার একদল পুলিশ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে বার্থী ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাসে চাম্বুল গাছের সাথে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেন। লাশে সুরাত হাল দেখে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে যে, ওই কলেজ ছাত্র গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

 

এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু’র মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়না তদন্ত ছাড়াই কাওছারের লাশ অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।