Amar Praner Bangladesh

চিরিরবন্দরে কাঁকড়া সেতু ভেঙে পড়ায় হাজারো মানুষের দুর্ভোগ।

চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

চিরিরবন্দরে কাঁকড়া নদীতে সেতু ভেঙে সারবাহী ট্রাক ২৫ টন মালামাল বহন করে আনা সেতুর উঠার পর কাঁকড়া ব্রীজ ভেঙে পড়ে। দিনাজপুর-পার্বতীপুর সড়ক যোগযোগ বিছিন্ন হয়ে পড়েছে। এ কারণে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। চিরিরবন্দর কাঁকড়া সেতুটি খুব ঝুঁকিপূণ হয়ে পড়েছে।
গতকাল ১৯ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সকাল ৭ টায় চিরিরবন্দর কাঁকড়া নদীটি সেতু ভেঙে এ ঘটনাটি ঘটে। প্রত্যক্ষসূত্রে জানা গেছে, কারেন্ট হাট মোকছেদুল বলেন, আমি ঘুঘুরাতলী যাওয়ার পথে হঠাৎ পেছন দিকে দেখি মালবাহী ট্রাক সেতু ভেঙে পড়ে যায়,এবং বিকট ধরণের শব্দ শুরু হয়। এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে ড্রাইভার ও হেলপারকে উদ্ধার করা হয়। ট্রাকের হেলপার বাদশা বলেন, খুলনা নওয়াপাড়া থেকে চিরিরবন্দর কারেন্ট হাট যাওয়ার সময় কাঁকড়া সেতুটি মাঝাখানে যাওয়ার পথে ট্রাক ও কাঁকড়া ব্রীজসহ ভেঙে পড়ে। যাহার ট্রাক নম্বর চুয়াডাঙ্গা-ট ১১-০২৫৪, সকালে অতিরিক্ত কুয়াশা থাকায় সেতুটি ঝুঁকিপূণ বুঝতে পারিনি। সরেজমিনে কারেন্ট হাট রফিকুলের সঙ্গে কথা হলে তিনি অস্বিকার করে জানান, রিসিভ না দেখলে বলতে পারবোনা। কারণ সব মাল আমার না। ট্রাকের কতগুলো মাল ছিল সেটা আমি জানি না। তাছাড়া ট্রাকের ড্রাইভারের নাম জানি না। কয়েক জন স্থানীয় জানান, সাধারণ মানুষ পারাপারের জন্য নদীতে বাঁশ ও কাঠের সাঁকো নির্মাণ করেন। মানুষ পারাপারের জন্য মটর সাইকল ১০ টাকা এবং মানুষ পারাপার জন্য ৫ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। চিরিরবন্দর বৈদেশি হাট জয়নাল জানান, সেতুটি ভেঙে পড়ার জন্য দায়ী ট্রাক চালক ও তার মালিকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া উচিত। চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মো: হারেসুল ইসলাম জানান, এখনো অভিযাগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।