Amar Praner Bangladesh

চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুনামের সাথে পরিচালনা করছেন পুলিশ সুপার মোঃ জাহিদুল ইসলাম 

 

 

মোঃ খাইরুজ্জামান সজিব :

 

চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুনামের সাথে পরিচালনা করছেন এক মানবতার ফেরিওয়ালা পুলিশ সুপার মোঃ জাহিদুল ইসলাম (বিপিএম সেবা)।

সম্প্রতি তিনি গত  ০৯/০৯/ ২০১৯ ইং তারিখ চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। তার যোগদানের পর থেকে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি দিন দিন উন্নতির দিকে ধাবিত হচ্ছে।

তার পাঁচ থানার অফিসার ইনচার্জদেরকে তিনি নিদের্শ দিয়ে বলেন আমার চুয়াডাঙ্গা জেলায় কোনো মাদক,সন্ত্রাস,ডাকাত চোরাচালান কারবারীও ইভটিজিং থাকবে না এবং অফিসার্স ইনচার্জদের নিদের্শ দেন যে আপনার থানায় গিয়ে কোনো নাগরিক যেনো হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে বিশেষ করে সচেষ্টো থাকবেন। তিনি দেশের এই ক্লান্তিলগ্নে কোভিড-১৯ এর সময় তাঁর নিজ অর্থায়নে চুয়াডাঙ্গা জেলার বিভিন্ন গ্রাম মহল্লার দুই মুঠো খেটে খাওয়া অসহায় মানুষের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার মাক্স,খাদ্য সামগ্রী ও চিকিৎসা সেবাও সচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরন করেন এবং বলেন আমরা পুলিশ আপনাদের যানমাল নিরাপত্রা দেওয়ার জন্য আমরা রাস্তা আছি দয়া করে আপনারা ঘরে থাকুন বার,বার হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিস্কার করুন এমন কী তিনি তাঁর নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাত,দিন ঝড়,বর্ষা উপেক্ষা করে নিরলস ভাবে পরিশ্রম করেছেন এ জন্যই তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলা বাসীর কাছে মানবতার ফেরিওয়ালা নামে পরিচিতি লাভ করেছেন তাছাড়াও সমাজের মধ্যবিত্ত পরিবারের যারা কারোর কাছে হাত পাততে পারেনা তাঁরাও তাঁর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি তাদের পরিচয় গোপন রেখে নিজে শ্বশরীরে উপস্থিত হয়ে তাদের ঘরে খাদ্য সামগ্র পৌছায় দেন।

এই মহামানবের সাথে যে কেউ যেকোনো সময় সাক্ষাৎ করতে পারে কোনো বাঁধা নেই। তাঁর কাছে কেউ কোনো বিষয় নিয়ে উপস্থিত হলে তিনি সেই ব্যাক্তির কথা ভালোভাবে বুঝে,শুনে তাৎক্ষনিক ভাবে ব্যাবস্থা নেন যার মধ্যে বিন্দু পরিমান কোনো অহংকার নাই বললে চলে তিনি প্রতিনিয়ত বিভিন্ন, মসজিদ মাদ্রাসা এতিম খানা অসহায় মানুষের সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।

তাছাড়াও তিনি বিভিন্ন উৎসবে তাঁর নিজ অর্থায়নে এতিম,অসহায়ও দুস্তদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বস্ত্র বিতরন করেন এ কর্মকর্তার সাথে মুঠোফোনে দৈনিক আমার প্রানের বাংলাদেশ এর প্রতিনিধি যোগাযোগ করলে তিনি বলেন পুলিশের এসেছি সেবার ব্রত্ত নিয়ে জীবনে যতো দিন বেঁচে থাকবো সৎও নিষ্টার সাথে কাজ করে যাবো ইনশাআল্লা সকলে আমিও আমার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন মহান আল্লাপাক যেনো সব সময় আমিও আমার পরিবারকে ভালো সুস্থ্য এবং সম্নানের সাথে রাখেন। আমরা মনে করি এ ধরনের পুলিশ কর্মকর্তা ও মানবতার ফেরিওয়ালা বাংলাদেশে ঘরে,ঘরে থাকা উচিৎ।