Amar Praner Bangladesh

চৌকিদারের স্বামী কান ফাটিয়ে দিলেন বৃদ্ধা আপন চাচির

 

 

এসএম ফোরকান মাহামুদ :

 

বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের চৌকিদার মোসাঃ খালেদা বেগম এর স্বামী মোঃ রফিকুল ইসলাম বৃদ্ধ শিমুল বেগম (৫০) এর কান ফাটিয়ে দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে।

জানা যায়, শিমুল বেগমের স্বামী মোঃ আনোয়ার হোসেন জোমাদ্দার ও অভিযুক্ত রফিকের বাবা আপন ভাই। তাদের মধ্যে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে এবং কোর্টে ও থানায় বিভিন্ন মামলা মোকার্দ্দমা রয়েছে। উভয় পক্ষের মধ্যে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার জন্য বামনা থানার অফিসার ইনচার্জ বশিরুল আলম গত শনিবার ঘটনা স্থলে যান এবং উভয় পক্ষকে শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার নির্দেশ দিয়ে চলে আসার কিছুক্ষণ পরই তারা উভয় পক্ষ ঝগড়া ও মারামারিতে লিপ্ত হন।

এ সময় চৌকিদারের স্বামী রফিকুল ইসলাম ঐ বৃদ্ধ শিমুল বেগমকে ধারালো দাও দিয়ে কোপ দিলে তার কান কেটে যায়। বর্তমানে শিমুল বেগম বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। অভিযুক্ত রফিক বলেন আনোয়ার হোসেন ও শিমুল বেগম আমার বাবাকে মারধর করলে আমি ছাড়াতে যাই, আমি তার কানে কোন রকম আঘাত করিনাই।
শিমুল বেগমের বাসুরের ছেলে আল আমিন জানান পুলিশ চলে যাওয়ার পরই রফিক, চৌকিদার খালেদা ও আমির হোসেনসহ অনেকেই একত্রিত হয়ে আমার চাচা ও চাচীর উপর হামলা করেন এবং রফিকের দায়ের কোপে আমার চাচীর কান কেটে গিয়ে পর্দা ফেটে যায়। বর্তমানে তিনি বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

বামনা থানার অফিসার বশিরুল আলম বলেন, ঘটনার খবর শুনে ঘটনা স্থলে পুলিশ পাঠিয়ে ছিলাম। এখন পর্যন্ত কেউই থানায় অভিযোগ দেয়নি অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।