Amar Praner Bangladesh

ছিনতাই, মাদক ও চাঁদাবাজী রোধে কঠোর অবস্থানে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ

 

রবিউল আলম রাজু :

 

ছিনতাই, মাদক ও চাঁদাবাজী রোধে কঠোর অবস্থানে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। থানা এলাকার রাস্তার মোড়ে মোড়ে বসানো হচ্ছে ফোর-কে রেজ্যুলেশনের সিসি ক্যামেরা। ছিনতাই বেশি হচ্ছে এমন স্পর্টে সার্বক্ষণিক বিশেষ টিম কাজ করছে। এছাড়াও মাদক নিয়ন্ত্রণে জিরো টলারেন্স মেনে চলছে পুলিশের সকল সদস্য। শনিবার (৬ আগস্ট) দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন।

উত্তরার ৩, ৫, ৭, ৯, ১০, ১১, ১২, ও ১৩ নং সেক্টর নিয়ে এ থানা এলাকা গঠিত। সভায় মাদক ও কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ এবং হাইওয়ে রাস্তার ছিনতাইসহ অন্যান্য অপরাধ দমনে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের বিভিন্ন উদ্যোগের কথাও তুলে ধরেন তিনি। মতবিনিময় সভায় উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকার বিভিন্ন অপরাধ দমনে করণীয় বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরেন বাংলাদেশ প্রতিদিনের সাংবাদিক আলী আজম।

সাংবাদিকদের মধ্যে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশের সাংবাদিক রবিউল আলম রাজু, দৈনিক ইনকিলাবের সাংবাদিক ইয়াছিন রানা, নিউজ টোয়েন্টিফোর টেলিভিশনের সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম, দৈনিক ইত্তেফাকের সাংবাদিক জাহাঙ্গীর কবির, বার্তা বাজার পত্রিকার সাংবাদিক তানজীন মাহমুদ তনু। মতবিনিময়ে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের পক্ষ থেকে আরো বক্তব্য রাখেন, ওসি (তদন্ত) ইয়াসীন গাজী। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে ওসি ইন্চার্জ মোহাম্মাদ মহসিন বলেন, আবদুল্লাহপুর এলাকায় ছিনতাইয়ের ঘটনা বেশি ঘটে।

তিনটি থানা উত্তরা পশ্চিম, উত্তরা পূর্ব এবং টঙ্গী পূর্ব ও টঙ্গী পশ্চিম থানার সংযোগ স্থল হওয়াতে ছিনতাইকারীদের উপদ্রব বেশি। হাইওয়েতে বাস যাত্রীদের কাছ থেকে জালানা দিয়ে মোবাইল ছিনতাই হয়ে থাকে, এগুলো ভাসমান অপরাধীরা করে থাকে। উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকায় ভাসমান অপরাধীই বেশি। ইতোমধ্যে এসব অপরাধ রোধে এবং অপরাধী শনাক্ত করতে ফোর-কে রেজ্যুলেশনের সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে, আরো বেশি কিছু জায়গায় লাগানো হবে।

সার্বক্ষণিক বিশেষ টিম রাখা হয়েছে। এখন অনেকটা কমেছে ছিনতাই। সিসি ক্যামেরা দেখে ছিনতাইকারীদের শনাক্ত করতে পারছি। এছাড়া অন্যান্য এলাকাতেও ছিনতাই রোধে সার্বক্ষণিক সক্রিয় থাকছে পুলিশের একাধিক টিম। তিনি আরো বলেন, পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আসলে তারও তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। আমি ইতোমধ্যে সব জায়গায় বলেছি, পুলিশের নামে কোথাও যদি কোন টাকা চাওয়া হয়, তাহলে আমাকে ফোন দিবেন। আমি তার ব্যবস্থা নিব।

ওসি মহসীন আরো বলেন, মাদক মুক্ত থানা গড়া আমার স্বপ্ন। মাদক নিয়ন্ত্রণে আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো। মহসীন বলেন, এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতিসহ নানা অপরাধ ও প্রতিবন্ধকতা দূর করতে সাংবাদিক ও পুলিশের সমন্বয় খুবই জরুরী। তবে শুধু পুলিশ ও সাংবাদিকদের সমন্বয়ের ভিত্তিতে থানা এলাকায় নানা অপরাধ প্রতিরোধ ও নির্মূল করা সম্ভব।