Amar Praner Bangladesh

জাতীয় স্মৃতিসৌধে সাব-এডিটরস কাউন্সিলের শ্রদ্ধা

 

 

অলিদুর রহমান অলিঃ

 

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল (ডিএসইসি)।

সংগঠনটির নব-নির্বাচিত সভাপতি মামুন ফরাজী ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হৃদয়ের নেতৃত্বে শনিবার (২৬ মার্চ) এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নব-নির্বাচিত কমিটির কোষাধ্যক্ষ কবীর আলমগীর, দফতর সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক নাজিম-উদ দৌলা সাদি, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক শিবলী নোমানী, কল্যাণ সম্পাদক জাফরুল আলম, কার্যনির্বাহী সদস্য হালিমা খাতুন, নঈম মাশরেকী ও মনসুর আহমেদ।

সংগঠনটির নব-নির্বাচিত সভাপতি মামুন ফরাজী ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হৃদয়ের নেতৃত্বে শনিবার (২৬ মার্চ) এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নব-নির্বাচিত কমিটির কোষাধ্যক্ষ কবীর আলমগীর, দফতর সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক নাজিম-উদ দৌলা সাদি, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক শিবলী নোমানী, কল্যাণ সম্পাদক জাফরুল আলম, কার্যনির্বাহী সদস্য হালিমা খাতুন, নঈম মাশরেকী ও মনসুর আহমেদ।

এদিন সকাল ১০টায় জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা করে নব-নির্বাচিত নেতারা। আলোচনা অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হৃদয়। এ সময় আবুল হাসান হৃদয় বলেন, ‘দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানি ও ৩০ লাখ মানুষের আত্মত্যাগের মাধ্যমে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে পাওয়া এ স্বাধীনতা ধরে রাখতে হলে সমাজের প্রতিটি মানুষকে যার যার স্তর থেকে কাজ করে যেতে হবে।

আমাদের প্রাণের সংগঠন ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিল মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে বিশ্বাসী। সংগঠনের প্রতিটি কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে এ আদর্শের প্রমাণ আমরা রাখতে চাই। সংগঠনের সভাপতি মামুন ফরাজী বলেন, আমাদের মুক্তিযুদ্ধের লক্ষ্য ছিল একটি সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করা। অথর্নীতি, রাজনীতি, শিক্ষা নানাক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে গেলেও এখনও সমতাভিত্তিক সমাজকাঠামো পূরণের লক্ষ্য অর্জিত হয়নি। স্বাধীনতার ৫০ বছরে এসে তাই আমাদের নতুন করে শপথ নেওয়া দরকার। আমাদের কাজ করতে হবে শোষণ-বঞ্চনার বিরুদ্ধে, কাজ করতে হবে সাংবাদিক সমাজসহ গণমানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায়। তাহলে স্বাধীনতা অর্জনের উদ্দেশ্য সার্থক হবে।