Amar Praner Bangladesh

জামালপুর মাদারগঞ্জে করোনা মোকাবেলায় সাধারণ মানুষের পাশে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

 

 

মোমিনুল ইসলাম, জামালপুর থেকে :

 

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী এক আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস । যা ইতোমধ্যে বাংলাদেশে প্রাণ কেড়ে নিয়েছে বহু মানুষের। করোনা মোকাবিলায় চেষ্টা চলছে সারা দেশে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সরকার। সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে উপজেলা চেয়ারম্যানরা।

আর এসব নির্দেশনা পালনে প্রথম থেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে চলছেন জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মাদারগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ ওবায়দুর রহমান বেলাল । দিনরাত উপজেলার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে চলেছেন তিনি।জনগণকে সচেতন করা, হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা, নিম্নআয়ের মানুষের খোঁজখবর এবং ও মানুষের মাঝে মাস্ক ও ত্রাণ বিতরণ করেছেন।এরই মধ্যে জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এর মানবিক গুনাবলী সবার নজর কেড়েছে।তিনি করোনা মোকাবিলায় সাধারণ মানুষের জন্য দিন-রাত পরিশ্রম করছেন।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের নির্দেশ পালনের জন্য সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলার অনেকেই বলেন বর্তমানে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বাজার ও রাস্তাঘাট মনিটরিং করে বাজারে কোন লোকজনের আড্ডা আছে কিনা, মুখে মাস্ক পড়ছে কিনা, স্বাস্থ্যবিধি মানছে কি না।তিনি আসলেই ভালো মানুষ। আর আমাদের উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হলেন জনদরদি ও জনবান্ধব। উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে গিয়ে কেউ কোনদিন খালি হাতে ফিরে আসেনি সব সময় অসহায় ও দুস্থদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। ইতিমধ্যে তিনি ত্রাণ বিতরণ করেছেন বিভিন্ন অসহায়দের মধ্যে।

এছাড়াও করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে তার রাতদিন তৎপরতা সর্বস্তরের মানুষের ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে। মাদারগঞ্জ বাসীদেরকে সুরক্ষিত রাখতে উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ ওবায়দুর রহমান বেলাল অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। প্রকৃতপক্ষে দুস্থ ও অসহায়রা প্রতিটি ইউনিয়নে ত্রাণ সঠিকভাবে পাচ্ছে কিনা তারও পর্যবেক্ষণ করছেন। উপজেলার চরাঞ্চলসহ প্রত্যেকটি ইউনিয়নের অসচ্ছল এবং হতদরিদ্র পরিবারের কাছে জরুরী ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে।

মাদারগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ওবায়দুর রহমান বেলাল, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি মহোদয়ের কথা উল্লেখ করে বলেন, তিনি আমাকে সহযোগিতা করছেন। নিজ উদ্যোগে ও স্থানীয়দের সহায়তার মাধ্যমে সংকটময় পরিস্থিতির মোকাবেলার চেষ্টা করছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত যতদূর সম্ভব মানুষের সেবা করব।