Amar Praner Bangladesh

জোরপূর্বক ২১’লক্ষ টাকার কাবিন, বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

 

 

আবু হাসানঃ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী কর্তৃক সাবেক স্বামীকে তুলে নিয়ে জোরপূর্বক ২১ লক্ষ টাকা দেনমোহরে পূণঃবিবাহ রেজিষ্ট্রি করার চাঞ্চল্যকর ঘটনায় বিয়ে বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী।

বুধবার সকাল ১১ টায় সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভুক্তভোগী উপজেলার ছাপড়হাটী ইউনিয়নের দক্ষিণ মরুয়াদহ গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (৩৮)।

তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, বিগত ২০০৪ সালে উপজেলার রামজীবন ইউনিয়নের কে কৈ কাশদহ গ্রামের আবুল কাশেম সরকারের মেয়ে মোছা. তাসনিম আক্তারের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর ১৯ বছর ঘর সংসার করা কালে আয়শা সিদ্দিকা (১৪) নামে মেয়ে ও তাহসিনুল রহমান তোহা (০৯) নামে এক ছেলে রয়েছে। এতোদিন সুখের সংসার করলেও গতবছর থেকে তার স্ত্রীর চলাফেরা, আচার-আচরণে বেশকিছু বিষয়াদি নিয়ে পারিবারিক কলহ দেখা দেয়। এরই একপর্যায়ে কলহ চরম পর্যায়ে পৌছিলে গতবছরের ২৭ ডিসেম্বর উভয় পক্ষের সম্মতিতে খোলা তালাকের মাধ্যমে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক বিচ্ছেদ হয়। এরপর সকল পাওনায়াদী বুঝিয়ে নেওয়ার পরেও তার তালাকপ্রাপ্তা স্ত্রী অন্যের কু-পরামর্শে তালাক মানিনা মর্মে স্বামীর বাড়িতে অবস্থান নেয়।

এমতাবস্থায় রাশেদুল বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র গিয়ে অবস্থান নেয়। সেই সাথে তালাকপ্রাপ্তা স্ত্রীকে বাড়ি হতে বের করার জন্য গাইবান্ধা পারিবারিক আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যা বর্তমানে বিচারাধীন রয়েছে। গত ৪ এপ্রিল এ মামলার ধার্য্যদিনে হাজিরা দিতে আদালতে গিয়ে সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে গাইবান্ধা রাবেয়া ক্লিনিক ও নার্সিং হোমের সামনে পৌছামাত্র তালাকপ্রাপ্তা স্ত্রী তাসনিম আক্তার কযেকজন ভাড়াটে সন্ত্রাসী নিয়ে রাশেদুলের পথরোধ করে জোরপূর্বক কোর্ট কাজী মিলনের ঘরে আটকে রেখে হত্যা ও গুম করার হুমকি দেয়। এরপর রাশেদুলের কাছে থাকা ২ লক্ষ ৫৫ হাজার টাকা জোরপূর্বক কেড়ে নিয়ে ২১ লাখ টাকা দেনমোহরে জোরপূর্বক পূণরায় বিবাহ রেজিষ্ট্রি করে ও ৬টি সাদা স্টাম্পে স্বাক্ষর নেয়। এ ঘটনায় বিবাহ রেজিষ্ট্রি বাতিলসহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করে রাশেদুল।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দহবন্দ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আশেক আলী জিকু, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মিলন চন্দ্র সরকার, আক্কাস আলী, রাশেদুল ইসলামের ভাতিজা শাওন মিয়া, ফরহাদুল ইসলাম  প্রমূখ।