Amar Praner Bangladesh

টঙ্গীতে “দাদা ভাই” গ্রুপের ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ধারালো অস্ত্রসহ ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১

 

 

আব্দুল খালেক সুমন :

বর্তমান সময়ে কিশোর গ্যাং, গ্যাং কালচার, উঠতি বয়সি ছেলেদের মাঝে ক্ষমতা বিস্তারকে কেন্দ্র করে এক গ্রুপের সাথে অন্য গ্রুপের মারামারি করা বহুল আলোচিত ঘটনায় পরিনত হয়েছে। গ্যাং সদস্যরা এলাকায় নিজেদের অস্তিত্ব জাহির করার জন্য উচ্চ শব্দে গান বাজিয়ে দল বেধে ঘুরে বেড়ায়, বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালায়, পথচারীদের উত্ত্যক্ত করে এবং ছোট খাট বিষয় নিয়ে সাধারণ মানুষের উপর চড়াও হয়ে হাতাহাতি-মারামারি করে। এছাড়াও তারা নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখার জন্য একই এলাকায় অন্যান্য গ্রুপের সাথে প্রায়সই কোন্দলে লিপ্ত থাকে। তাদের এই ধরনের চলাফেরার কারণে সাধারণ লোকজন তাদের অনেকটাই এড়িয়ে চলে। এই এড়ানোর বিষয়টিকে তারা তাদের ক্ষমতা হিসেবে ভাবে এবং কোন ঘটনায় কেউ কোন প্রতিবাদ করলেও ক্ষমতা জাহির করতে মারামারি করাসহ অনেক সময় খুন করতেও দ্বিধাবোধ করে না।

র‌্যাব-১ এর গোয়েন্দা অনুসন্ধানে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকারী ‘দাদা ভাই’ নামক একটি কিশোর গ্যাং এর তথ্য পাওয়া যায়। জানা যায় যে, এই গ্রুপটি টঙ্গী এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ আধিপত্য বিস্তার করে আসছে। তারা মাদক সেবন, স্কুল-কলেজে বুলিং, র‌্যাগিং, ইভটিজিং, ছিনতাই, ডাকাতি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অশ্লীল ভিডিও শেয়ারসহ নানাবিধ অনৈতিক কাজে লিপ্ত, যা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে নিশ্চিত ক্ষতির মুখে ধাবিত করছে। এরই প্রেক্ষিতে কিশোর গ্যাং এর বিপথগামী সদস্যদের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ সাস্প্রতিক সময়ে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পূর্ব থানাধীন পূর্ব আরিচপুর এলাকায় কতিপয় কিশোর গ্যাং সদস্যরা ডাকাতির জন্য ছুরি, চাকু, রামদা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ঘোরাফেরা করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১ এর আভিযানিক দলটি গত ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ইং তারিখ সময় আনুমানিক ২০৪০ ঘটিকায় হতে সারারাত ব্যাপী গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পূর্ব থানাধীন পূর্ব আরিচপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ডাকাতির প্রস্তুুতিকালে ‘দাদা ভাই’ কিশোর গ্যাং গ্রুপের সক্রিয় সদস্য ১) আবু তালহা (১৯), পিতা-মোঃ বাছির খান, জেলা-গাজীপুর, ২) মোঃ নয়ন সিকদার (১৯), পিতা-আলাল সিকদার, জেলা-শরীয়তপুর, ৩) মোঃ আব্দুর রহিম (১৮), পিতা-মোঃ দানেস, জেলা-জামালপুর, ৪) মোঃ কাজী নজরুল ইসলাম (১৮), পিতা-মোঃ দুলাল মিয়া, জেলা-ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, ৫) মোঃ আরিফুল ইসলাম(১৮), পিতা-মোঃ আনোয়ার হোসেন, জেলা-টাঙ্গাইল এবং ৬) মোঃ সায়েত্তম (১৮), পিতা-মৃত শাহ আলম, জেলা-কুমিল্লা’দেরকে গ্রেফতার করে। এসময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ০২ টি রামদা, ০৩ টি চাকু, ০১ টি লোহার রড ও ০৪ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

ধৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা ‘দাদা ভাই’ কিশোর গ্যাং গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। তারা দীর্ঘদিন যাবত গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় আধিপত্র বিস্তার করত। তারা মাদক সেবন, স্কুল-কলেজে বুলিং, র‌্যাগিং, ইভটিজিং, ছিনতাই, ডাকাতি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অশ্লীল ভিডিও শেয়ারসহ নানাবিধ অনৈতিক কাজে লিপ্ত ছিল মর্মে স্বীকার করে। ধৃত আসামীরা বর্ণিত হামলার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। কিশোর গ্যাং এর বিপদগামী সদস্যদের আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ এর অভিযান অব্যাহত রয়েছে।