Amar Praner Bangladesh

টাঙ্গাইলে বিয়ের দাবিতে ভাতিজার বাড়িতে চাচি

 

 

 

টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

 

টাঙ্গাইলে বিয়ের দাবিতে ভাতিজার বাড়িতে উঠেছে চাচি। এ ঘটনায় এলাকায় সমালোচনার ঝড় বইছে। ঘটনাটি দেখতে শত-শত উৎসুকজনতা ওই বাড়িতে ভীড় জমাচ্ছে।

ঘটনাটি ঘটছে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বানিজ্যিক এলাকা করটিয়া ইউনিয়েনের গোসাইবাড়ী কুমুল্লি গ্রামে।

জানা গেছে,গোসাইবাড়ী কুমুল্লি গ্রামের মো. বেলায়েত হোসেনের ছেলে মো. সোহাগ (১৬) প্রতিবেশী সম্পর্কে চাচির (২৬) সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। গত এক বছর ধরে চলছে চাচি-ভাতিজার নিবিড় এ সম্পর্ক।

ভালবাসার টানে মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) সকালে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক ভাতিজা সোহাগের বাড়িতে উঠে পড়েন প্রেমিকা চাঁচি। এতে বিপাকে পড়ে উভয়ের পরিবার। সন্ধ্যায় সোহাগদের বাড়ির উঠানে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো.নেছার উদ্দিনের উপস্থিতিতে সালিশী বৈঠক করেন মাতাব্বর হেলাল মোল্লাহ, নজু মন্ডলসহ শতাধিক জনতা।

সালিশী বৈঠকে সকলের সামনে চাচি ভাতিজা দুইজনেই বিয়ের দাবিতে অনড় থাকে। আইনি জটিলতা (মেয়ে বিবাহিতা- ছেলে নাবালক) থাকায় সালিসে সিদ্ধান্তে চাচিকে পুর্বের স্বামীকে তালাক দেওয়ায় ইউপি সদস্য মো. নেছার উদ্দিন।

এ বিষয়ে করটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) মো. নেছার উদ্দিন জানান পুর্বের স্বামীকে তালাকের ব্যবস্থা করিয়ে প্রেমিক সোহাগের বাড়িতে মেয়েটি রেখে দিয়েছি। বিয়ের বিষয়ে আইনি জটিলতা থাকায় তাদের বিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়নি।