টাঙ্গাইল মধুপুরে আদিবাসী নারীর কলা বাগান কাটার প্রতিবাদে মানববন্ধন

 

 

আঃ রশিদ তালুকদার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

 

টাঙ্গাইলের মধুপুরে আদিবাসী গারো নারী বাসন্তী রেমার ৪০ শতাংশ জমির আবাদি কলা বাগান কেটে ফেলার প্রতিবাদে সম্মিলিত আদিবাসী ছাত্র জনতার ব্যানারে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।

১৫ সেপ্টেম্বর সকালে টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কে পঁচিশমাইল বাজার এলাকায় ওই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়। সমাবেশে জয়েনশাহী আদিবাসী উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি ইউজিন নকরেকের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জয়েনশাহী আদিবাসী উন্নয়ন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রবীণ চিসিম, গারো ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক লিয়াং রিছিল, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক অনিক দিব্রা, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন মধুপুর শাখার সভাপতি বিজয় হাজং, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামল মানখিন, সাবেক সম্পাদক মিলন দফো প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন, বন বিভাগ বিনা নোটিশে শোলাকুড়ি ইউনিয়নের পেগামারী গ্রামের নিরীহ গারো নারী বাসন্তী রেমার বাপ-দাদার আমল থেকে দখলে থাকা চাষাবাদ করা ৪০ শতাংশ জমির আবাদি কলা বাগান কেটে ফেলেছে। এটা আদিবাসীদের উচ্ছেদের ষড়যন্ত্রের অংশ।

পরে এভাবে উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করলে তারা রুখে দাঁড়াবে। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে মধুপুর এলাকার গারো সম্প্রদায়ের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিরা ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে অংশগ্রহণ করে। উল্লেখ্য, ১৪ সেপ্টেম্বর বন বিভাগ বিনা নোটিশে পেগামারী গ্রামের গারো নারী বাসন্তী রেমার ৪০শতাংশ জমি আবাদি কলা বাগান কেটে দেয়।